অসমে ভয়াবহ বন্যা, সাহায্যের বার্তা রাষ্ট্রসংঘের

582

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্কঅসমের বন্যা ভয়াবহ আকার নিয়েছে। রাজ্যের ৩৩টি জেলার মধ্যে ২৪টি জেলা এখনও বন্যার কবলে। ২৪ লক্ষ ২০ হাজার মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। অসমের বন্যায় রাষ্ট্রসংঘও উদ্বিগ্ন। বন্যা মোকাবিলায় ভারতকে সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছে রাষ্ট্রসংঘ। ইউএন সেক্রেটারি জেনারেলের মুখপাত্র স্টেফান দুজারিক জানিয়েছেন, ভারত চাইলে সাহায্যের জন্য প্রস্তুত রাষ্ট্রসংঘ।

অসমে টানা বৃষ্টির জেরে বিভিন্ন নদনদী ফুলেফেঁপে উঠেছে। ব্রহ্মপুত্র ও আরও ৮টি নদী বর্তমানে বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে। বন্যায় মধ্য অসমের নগাঁও ও মরিগাঁও জেলায় আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। অসমে বন্যায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৭। এছাড়া ভূমিধসে আরও ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

- Advertisement -

অসমের বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, এই মুহূর্তে ২ হাজার ৩২৩টি গ্রাম বন্যার জলের তলায়। ১.১০ লক্ষ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। রাজ্যর তরফে বেশকিছু ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। জলবন্দি মানুষকে উদ্ধার করে ত্রাণ শিবিরে নিয়ে যাচ্ছেন বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের কর্মীরা। রাতেও চলছে উদ্ধার কাজ।

এদিকে, বন্যার জেরে কাজিরাঙা ন্যাশনাল পার্কের ৮০ শতাংশ এলাকা জলের তলায়। বন্য়ায় কাজিরাঙা ন্যাশনাল পার্কের ১১৬টি বন্যপ্রাণীর মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে ১১টি গন্ডার রয়েছে। ১৪৩টি বন্যপ্রাণীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

অসমের হোজাই, ধেমাজি, লক্ষীপুর, বিশ্বনাথ, শোনিতপুর, উদালগুড়ি, দারাং, বাকসা, নলবাড়ি, বরপেটা, চিরাং, বঙ্গাইগাঁও, কোকরাঝাড়, ধুবড়ি, গোয়ালপাড়া, কামরূপ, নগাঁও, গোয়ালঘাট, জোড়হাট, মাজুলি, শিবসাগর, ডিব্রুগড়, তিনসুকিয়া ও করবি আংলং জেলা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।