শনাক্তকরণ হচ্ছে না, বিশেষভাবে সক্ষমরা সমস্যায়

প্রণব সূত্রধর, আলিপুরদুয়ার : আট মাস ধরে বিশেষভাবে সক্ষমদের শনাক্তকরণ ও বিশেষভাবে সক্ষম সার্টিফিকেট দেওয়া বন্ধ রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ফলে বিশেষভাবে সক্ষমরা নতুন করে মানবিক ভাতার জন্য আবেদন করতে পারছেন না। এমন অবস্থায় লকডাউনের মদ্যে আর্থিক সমস্যায় পড়েছেন বিশেষভাবে সক্ষমরা।

বিশেষভাবে সক্ষমদের অনেকই ছোট দোকান বা লটারির টিকিট বিক্রির মতো কম পরিশ্রমের কাজের সঙ্গে যুক্ত। এছাড়া একটা অংশ ভিক্ষাজীবী। করোনা পরিস্থিতি ও লকডাউনের জন্য আর্থিক সংকটের মুখে পড়েছেন তাঁরা। প্রতিমাসের প্রথম মঙ্গলবার আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে বিশেষভাবে সক্ষমদের শনাক্তকরণ শিবির করা হত। একইভাবে বীরপাড়া ও ফালাকাটা হাসপাতালেও এই বিশেষভাবে সক্ষমদের শনাক্তকরণের জন্য মেডিকেল বোর্ড বসত। কিন্তু গত মার্চ মাসের পর থেকে তা বন্ধ রয়েছে। এছাড়া ব্লকগুলিতেও একাধিক মেডিকেল ক্যাম্প করে এই বিশেষভাবে সক্ষমদের শনাক্তকরণ শিবির শুরু হয়। তবে চলতি বছরে জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসেও যাঁদের প্রতিবন্ধী বলে শনাক্তকরণ করা হয়েছিল তাঁরাও সার্টিফিকেট পাননি বলে অভিযোগ। ফলে নতুন করে বিশেষভাবে সক্ষমরা মানবিক ভাতার জন্য আবেদন করতে পারছেন না। আলিপুরদুয়ার জেলায় কুড়ি হাজার এবং শহর এলাকায় অন্তত দুই হাজার বিশেষভাবে সক্ষম রয়েছেন। তাঁরা প্রত্যেকেই মানবিক ভাতা পেলেও নতুনরা সে সুযোগ পাচ্ছেন না।

- Advertisement -

এছাড়া তাঁদের একটা অংশ এখনও জুলাই থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত এই চার মাসের মানবিক ভাতা পাননি বলে অভিযোগ। বিশেষভাবে সক্ষম পরিমল দাস বলেন, লটারির টিকিট বিক্রি করি। লকডাউনে ব্যবসার টাকা শেষ। ফলে ভিক্ষে করছি। হুইলচেয়ারটি ভেঙে গিয়েছে। ব্লক অফিসে আবেদন করেও পাচ্ছি না। মানবিক ভাতা অনেক সময় অনিয়মিত আসে ফলে সংসার চালাতে সমস্যা হচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য প্রতিবন্ধী সম্মিলনি সংগঠনের সম্পাদক বিনয় ধর বলেন, আট-নয় মাস ধরে নতুন করে প্রতিবন্ধীদের শনাক্তকরণের জন্য কোনও মেডিকেল বোর্ড বসছে না। এমনকি প্রায় এক বছর হতে চলল কেউ সার্টিফিকেট পাচ্ছেন না। ফলে নতুন করে মানবিক ভাতার জন্য আবেদন করতে পারছেন না। আলিপুরদুয়ার হাসপাতালে অডিওগ্রাম রিপোর্টের ব্যবস্থা নেই। ফলে অনেকে ভুয়ো সার্টিফিকেট বের করে নিচ্ছেন।

বিশেষভাবে সক্ষম মৃদুল সাহা বলেন, আমাদের খাদ্য সুরক্ষা যোজনা ও একশো দিনের কাজের সুবিধাও দেওয়া হচ্ছে না। করোনা পরিস্থিতিতে আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি। আলিপুরদুয়ার জেলা সমাজকল্যাণ আধিকারিক তাপস মণ্ডল বলেন, হাসপাতালগুলিতে প্রতিবন্ধী শনাক্তকরণের জন্য মেডিকেল টিম নিয়মিত বসছে। লকডাউন পরিস্থিতিতে নতুন করে ৫০০ জন ভাতার সুযোগ পেয়েছেন। সার্টিফিকেটও দেওয়া হচ্ছে। করোনার জন্য শুধু ক্যাম্প বন্ধ রয়েছে।