অভিনব কায়দায় গুগল মিটে ভার্চুয়ালি শিক্ষক দিবস পালন

367

ফাঁসিদেওয়া, ৬ সেপ্টেম্বরঃ এবারে শিক্ষক দিবসে বন্ধ স্কুল। আর তাই ডিজিটাল প্লাটফর্মকে কাজে লাগিয়ে ভার্চুয়ালি শিক্ষক দিবস পালন করা হল। মূলত শিক্ষক দিবসের দিন স্কুলে গুরু-ছাত্রের সম্পর্কটা একটা আলাদা মাত্রা পায়। কিন্তু, এবারে সেই উপায় ছিল না। গৃহ শিক্ষকদের ক্ষেত্রে বিষয়টা একটু অন্যরকম ছিল। বিভিন্ন জায়গায় গোটা দিনই ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষকদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের নানা প্রক্রিয়া গ্রহণ করতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু, স্কুল শিক্ষকদের ক্ষেত্রে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় এ বছরের শিক্ষক দিবস যেন ম্লান হয়েছে। সেই জায়গায় অন্য বার্তা দিয়েছে শিলিগুড়ি মহকুমার ফাঁসিদেওয়া ব্লকে অবস্থিত মুরালীগঞ্জ হাই স্কুল। ইতিমধ্যেই, করোনা পরিস্থিতিতে ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে রাজ্য শিক্ষা দপ্তর অনলাইন ক্লাস নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল। সেই কথা মতো বিভিন্ন স্কুলে এখন অনলাইন পড়াশোনা প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। কম হলেও গ্রামীণ স্কুলগুলিতেও অনলাইনে ক্লাস চালু রয়েছে। সেই থেকেই স্কুল শিক্ষকদের এই চিন্তাধারা। সাড়াও মিলেছে ভালোই। শনিবার ৯০ জনের বেশি শিক্ষক এবং পড়ুয়া হাজির হয়েছিলেন বলে স্কুল শিক্ষকদের থেকে জানা গিয়েছে। এমনকি শিক্ষারত্ন নেওয়ার অনুষ্ঠানের ফাঁকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সামসুল আলমও সেই ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন। অনলাইনে শিক্ষক দিবস পালনের কথা ভাবতেই প্রথমটায় মনে হয়েছিল শিক্ষকরা ভার্চুয়ালি এক জায়গায় জমায়েত হলেও, গ্রামীণ এলাকায় হয়ত পড়ুয়াদের দেখা মিলবে না। কিন্তু, সেই ধারণাকল একেবারেই ভ্রান্ত প্রমাণ করে দিল মুরালীগঞ্জ হাই স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা। এদিন গুগুল মিটে প্রচুর ছাত্র-ছাত্রী এবং স্কুল শিক্ষকরা হাজির হয়েছিলেন। মনে করা হচ্ছে শুধু শিলিগুড়ি মহকুমা নয় উত্তরবঙ্গের একমাত্র মুরালীগঞ্জ হাই স্কুল, যেখানে এই অভিনব পদ্ধতিতে শিক্ষক দিবস পালন করা হয়েছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সামসুল আলম জানিয়েছেন, ইচ্ছে থাকলে যেকোনও প্রতিবন্ধকতাকে জয় করা যায়। সেই জয়টাই হয়তো এবারে অনলাইন শিক্ষক দিবস পালনের মাধ্যমে পড়ুয়ারা দেখিয়ে দিল। জায়গা যখন আছে তখন আটকানোর ক্ষমতা কারোর নেই। এভাবে শিক্ষক দিবস পালনের মাধ্যমে পড়ুয়াদের এই চেষ্টাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন সকলেই।