জামালপুরে অশান্তি, দিলীপ ঘোষকেই কাঠগড়ায় তুললেন মন্ত্রী

322

বর্ধমান: বিজেপির জনসভা ঘিরে শনিবার অশান্ত হয়ে ওঠে পূর্ব বর্ধমানের জামালপুরের জৌগ্রাম। তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীদের মারপিটে ওই এলাকা কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। ঘটনার জন্য এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকেই কাঠগড়ায় তুললেন রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। এদিন সন্ধ্যায় তিনি পূর্ব বর্ধমানের বেলনা গ্রামে একটি মঞ্চের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

বিকেলে দিলীপ ঘোষ যখন জামালপুরের সাহাপুরে কৃষক সমাবেশে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন তখন জৌগ্রামে তাঁর গাড়ির সামনে কালো পতাকা দেখানো নিয়ে অশান্তি চরমে উঠে। যুযুধান দুই রাজনৈতিক দলের মধ্যে ধুন্ধুমার লেগে যায়। মারপিটে চারজন বিজেপি কর্মী আহত হন। পাল্টা বিজেপি কর্মীরাও হামলা চালান। এলাকা রণক্ষেত্র হয়ে উঠলে পুলিশ লাঠি চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

- Advertisement -

এই ঘটনায় তীব্র ভাষায় তৃণমূলকে আক্রমণ করেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর মন্তব্যের পাল্টা জবাবে সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘উনি রোজই ভূত দেখেন। সব জায়গায় তৃণমূলের ভূত দেখা ওঁনার স্বভাব। আগে উনি দেখুন উনার নিজের দলের বিক্ষুব্ধরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে কি না। বিজেপি এখন নানা দিবাস্বপ্ন দেখছে। আরও দু-একমাস দিবাস্বপ্ন দেখবে। ভোটের ফল বেরোলে সব স্বপ্ন মিলিয়ে যাবে।’ এছাড়াও দিলীপ ঘোষের হুঁশিয়ারি প্রসঙ্গে সুব্রতবাবু বলেন, ‘ওটা ওঁনাদের স্বভাব।’ জৌগ্রামের তৃণমূল পার্টি অফিসে হামলার প্রসঙ্গে সুব্রতবাবু বলেন, ‘ঘটনা নিয়ে দলের তরফে নিশ্চয়ই থানায় অভিযোগ জানানো হবে। আইন আইনের পথে চলবে।’