বালুরঘাট, ২৬ জানুয়ারিঃ ‘পোহা (চিঁড়ে) খেলেই বাংলাদেশি নয়।’ এমনটাই মন্তব্য করে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ভাবনাকে কার্যত চ্যালেঞ্জ জানালেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার দিলীপবাবু সাফ জানান, তিনিও চিড়ে খান, বাংলার বাসিন্দাদের কাছে চিড়ে একটা বড়ো ব্যাপার। সম্প্রতি কৈলাস বিজয়বর্গীয় দাবি করেন, খাদ্যাভ্যাসে পোহা (চিঁড়ে) দেখে বাংলাদেশি চিনে ফেলেছেন তিনি। তাঁর এই মন্তব্যকেই কটাক্ষ করলেন দিলীপবাবু।

উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের প্রিয় খাবারের তালিকায় রয়েছে চিঁড়ে। দই-চিঁড়ে দিয়ে অনেক জায়গায় অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়। কৈলাস বিজয়বর্গীয়র চিঁড়ে নিয়ে এমন মন্তব্য মেনে নিতে নারাজ বাংলার বাসিন্দারা। যা কিছুটা হলেও বিজেপিকে অস্বস্তির মধ্যে ফেলে দিয়েছে। ইতিমধ্যেই কলকাতায় তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা নেত্রীরা এর প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন। এদিন কৈলাস বিজয়বর্গীয়র এই মন্তব্যকে সমর্থন না করে দিলীপবাবু অন্য পথে হেঁটে ড্যামেজ কনট্রোলের চেষ্টা করেছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

গত বৃহস্পতিবার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের সমর্থনে মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে আয়োজিত একটি সেমিনারে কৈলাস বিজয়বর্গীয় জানান, তাঁর বাড়িতে যে রাজমিস্ত্রিরা কাজ করছিলেন, তাঁদের মধ্যে কয়েকজনকে বাংলাদেশি বলে সন্দেহ হয় তাঁর। রাজমিস্ত্রিরা নিয়মিত পোহা (চিঁড়ে) খাচ্ছিলেন। সেই খাওয়ার অভ্যেস দেখে তাঁদের বাংলাদেশি বলে সন্দেহ হয় তাঁর। তিনি আরও জানান, তিনি অবশ্য এখনও পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাননি। কিন্তু সবাইকে সাবধান করে দিচ্ছেন।