খানাখন্দে ভরা দিলীপ ঘোষের গ্রামের রাস্তা

196

ঝাড়গ্রাম: বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বাড়ি যাওয়ার রাস্তাটির অবস্থা বেহাল হয়ে পড়ায় ক্ষোভ বাড়ছে এলাকার বাসিন্দাদেরl গোপীবল্লভপুর দু’নম্বর ব্লকের কুলিয়ানা গ্রামে দিলীপ ঘোষের বাড়িl সেখানে যেতে গেলে মাটির রাস্তা ধরে যেতে হয়l দিলীপ বাবুর পরিবারের এবং এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ ঝাড়গ্রামে ‘ওরা আমরা’ রাজনীতির কারণেই রাস্তাটির সংস্কার হচ্ছে নাl বাঁকুড়া এবং ঝাড়গ্রামের বিভিন্ন জনসভায় দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ছোটবেলায় ওই লাল ধুলো মাখা রাস্তা দিয়ে হেঁটে স্কুলে যেতামl প্রায় চল্লিশ বছর পরেও সেই একই অবস্থা রয়েছে রাস্তারl কোনও পরিবর্তন হয়নিl

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বনগড়া থেকে দিলীপ ঘোষের বাড়ি কুলিয়ানা পর্যন্ত দুই কিলোমিটার রাস্তা ঢালাই করার জন্য রাজ্যসভার সাংসদ কোটা থেকে মুকুল রায় টাকা বরাদ্দ করেনl তৃণমূলের দখলে থাকা গোপীবল্লভপুর দু’নম্বর পঞ্চায়েত সমিতি সে কাজের জন্য ঠিকাদার নিয়োগ করে ৪১ লক্ষ টাকায় কুলিয়ানার সংযোগ স্থল থেকে ৭০০ মিটার ঢালাই রাস্তা তৈরি করে পরে টাকার অভাবে শান্তিমোড় থেকে দিলীপ ঘোষের বাড়ি পর্যন্ত এক কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার হয়নিl মাটির এই রাস্তা বর্তমানে বড় বড় খানাখন্দে ভরাl রাস্তায় কোনও আলোর ব্যবস্থা নেইl

- Advertisement -

দিলীপ ঘোষের ভাই হীরক ঘোষ বলেন, পঞ্চায়েত সমিতি কাটছাঁট করে রাস্তাটি করেছেl অথচ পুরো রাস্তা ঢালাই করার কথা ছিলl কুলিয়ানা পর্যন্ত এক কিলোমিটার রাস্তা বড় বড় গর্ত ভরে গিয়েছেl বৃষ্টি হলে হাঁটুসমান কাদা দিয়ে যাতায়াত করতে হয়l অসুস্থ রোগী কিংবা প্রসূতিদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে বেশি সমস্যায় পড়তে হয় এই এলাকার মানুষকেl বিজেপির দখলে থাকা কুলিয়ানা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান হিরামনি টুডু বলেন, এক কিলোমিটার রাস্তা ঢালাই করার ক্ষমতা গ্রাম পঞ্চায়েতের নেইl তবে ইটের খোয়া দিয়ে রাস্তার গর্ত ভরাট করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছেl

গোপীবল্লভপুর দু’নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি হিমসাগর সিংহ জানিয়েছেন, এলাকার বিভিন্ন জায়গায় রাস্তার কাজ বাকি রয়েছেl ধাপে ধাপে সেগুলি করা হচ্ছেl তবে এখানকার সাংসদ বিজেপিরl তিনি কেন রাস্তাগুলির জন্য টাকা বরাদ্দ করছেন না? সাংসদ কুণার হেমরম এ প্রসঙ্গে জানান, করোনা আবহে সাংসদ টাকা বরাদ্দ করার ক্ষেত্রে কিছু বিধিনিষেধ রয়েছেl তা উঠে গেলে ওই রাস্তার জন্য অবশ্যই টাকা বরাদ্দ করা হবে।