কর্মসংস্থানের অভাবে বাংলার বেকার যুবকরা দিশাহীন হয়ে পড়ছেন, মন্তব্য দীপ্সিতার

42

বামনগোলা: সংযুক্ত মোর্চা মনোনীত সিপিএম প্রার্থী ঠাকুর টুডুর সমর্থনে সোমবার বিকেলে পাকুয়াহাটে নির্বাচনি সভা করলেন এসএফআই-এর সর্বভারতীয় সহ সম্পাদক দীপ্সিতা ধর এবং রাজ্য সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্যা গীতশ্রী সরকার। এদিন বিকেলে পাকুয়াহাট বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শুরুর আগে একটি মিছিলও করা হয়। উপস্থিত ছিলেন সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য জামিল ফিরদৌস, সিটু’র জেলা সম্পাদক প্রণব দাস, মহিলা সংগঠনের নেত্রী ছবি দেব, ব্লক কংগ্রেস নেতৃত্ব হরিপদ বৈরাগী, জয়ন্ত সরকার, আরএসপি’র জোনাল সম্পাদক সাকিরুদ্দিন সরকার সহ অন্য নেতারা।

এদিনের সভায় দীপ্সিতা তৃণমূল ও বিজেপির তীব্র সমালোচনা করেন। বলেন, ‘নির্বাচন এসেছে। এখন কেউ গোখরো, কেউ বাঘিনী। এটা নির্বাচন না চিড়িয়াখানা বোঝা যাচ্ছে না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় আসার আগে বলেছিলেন, এক কোটি বেকারের চাকরি দেবেন। কটা বেকারের চাকরি হয়েছে মানুষ দেখতে পাচ্ছেন। কর্মসংস্থানের অভাবে বাংলার বেকার যুবকরা দিশাহীন হয়ে পরিযায়ী শ্রমিক হচ্ছেন। সংযুক্ত মোর্চা ক্ষমতায় এলে চাকরির নামে তোলাবাজি চালানো তৃণমূলীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

- Advertisement -

কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘পেট্রোপণ্য সহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধি হয়েই চলেছে। সাধারণ মানুষের সমস্যার সমাধান না করে ধর্মের নামে বিভাজনের রাজনীতি করছে বিজেপি।’

অন্যদিকে, এসএফআই নেত্রী গীতশ্রী সরকার বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগে বলতেন দলতন্ত্র নয়, গণতন্ত্র চাই। আর এখন তিনি গণতন্ত্রকে ভূলুন্ঠিত করছেন। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ দেখছেন রাজ্যে কর্মসংস্থান নেই, বেকারের সংখ্যা বাড়ছে।’