শ্রাদ্ধানুষ্ঠান না করে দুঃস্থ ও অনাথ শিশুদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ মৃতার পরিবারের         

90

বুনিয়াদপুর: আত্মার শান্তি কামনায় ক্ষৌরকর্ম, শ্রাদ্ধানুষ্ঠান ছোট করে করলেও ব্রাহ্মণ সেবা, জ্ঞাতি, আত্মীয়স্বজনদের নিয়ে ব্রহ্ম ভোজ থেকে বিরত থাকলেন পরিবার। মঙ্গলবার বুনিয়াদপুরে বড়াইল উপজাতি কল্যাণ সংঘের ৫০ জন আবাসিক দুঃস্থ ও অনাথ শিশুদের খাবার, জামা কাপড়, খাতা পত্র বিতরণ করলেন মৃতার পরিবার। গত ১৯ মে করোনায় মৃত্যু হয়েছে গঙ্গারামপুরের ভারতী সাহার(৫৪)। গঙ্গারামপুর নতুন বাস স্ট্যান্ডে সুকান্তনগরের বাসিন্দা।

উল্লেখ্য, গত ৮ মে ভারতী দেবির করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। গঙ্গারামপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি হলে ওই দিন তাঁকে বালুরঘাট সদর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পরদিন বালুরঘাট থেকে মালদা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। সেখানে ১০ দিন করোনার সঙ্গে যুদ্ধে ১৯ মে দুপুর ২টো ২৫ মিনিট নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। নিয়ম মেনে মালদার কালিয়াচকের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। সোমবার গঙ্গারামপুরে স্বামী বিশ্বনাথ সাহা শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠান করেন সংক্ষিপ্ত আকারে।

- Advertisement -

এদিন বুনিয়াদপুর-২ নম্বর ওয়ার্ডে বড়াইল উপজাতি কল্যাণ সংঘের আশ্রমে ৫০ জন দুঃস্থ ও অনাথ শিশুদের নিয়ে ব্রহ্ম ভোজের টাকায় ৪৪ রকম সামগ্রী বিতরণ করেন। স্ত্রীর আত্মার শান্তি কামনায় বরাইল আশ্রমে বিশ্বনাথ বাবুর পাশে ছিলেন মেয়ে মৌসুমী, জামাতা অভিষেক সাহা ও নাতি রাকেশ সহ পরিবারের অন্যান্যরা।জামাতা অভিষেক সাহা বলেন, ‘শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করে দুঃস্থ ও অসহায় শিশুদের পাশে থাকতে পেরে শাশুড়ি মায়ের আত্মা শান্তি পাবে বলে জানান।’ আশ্রমা দক্ষ সুকুমার রায় চৌধুরী বলেন, ‘আশ্রমের তরফে ভারতী দেবির আত্মার শান্তি কামনা করি এবং পরিবারকে সমবেদনা জানাই। সকলের সুস্থতা কামনা করি।’