নাদালকে হারিয়ে এভারেস্টের মাথায় জোকার

প্যারিস : রোলাঁ গারোয় রাফায়েল নাদালকে হারানো আর মাউন্ট এভারেস্টে চড়া একই। বক্তার নাম নোভাক জকোভিচ। অবশ্য শুক্রবার রাতে প্রথম টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে রাফাকে দ্বিতীয়বার ফরাসি ওপেন থেকে ছিটকে দিয়েছেন এই সার্বিয়ান তারকা। একইসঙ্গে দ্বিতীয়বার কেরিয়ার গ্র‌্যান্ড স্ল্যাম জেতার সুযোগ রয়েছে তাঁর সামনে। যেই কৃতিত্ব নেই সমসাময়িক দুই মহাতারকা নাদাল বা রজার ফেডেরারের।

গত বছর ফাইনালে এই ফিলিপে শ্যাঁতিয়ের কোর্টেই জকোভিচকে অনায়াসে হারিয়েছেন রাফা। এবারও সেই মেজাজেই ম্যাচ শুরু করেছিলেন তিনি। স্প্যানিশ তারকার আর্মাডার সামনে অসহায় দেখাচ্ছিল জকোকে। শুরুতেই ৫-০ এগিয়ে যান রাফা। প্রথম সেট না বাঁচাতে পারলেও শেষদিকে লড়াই শুরু করেন জকোভিচ। পরের তিন সেটে সেই লড়াইয়ে ভর করেই অসম্ভবকে সম্ভব করলেন। ম্যাচ জিতলেন ৩-৬, ৬-৩, ৭-৬ (৭/৪), ৬-২ সেটে। ২০১৫ সালের কোয়ার্টার ফাইনালের পর ফের রোলাঁ গারোয় নাদালকে হারালেন জকোভিচ। আর আগে ১৩ বার শেষ চারে ওঠাকে ফাইনালে পরিবর্তন করলেও ১৪ নম্বরে এসে সেমিফাইনালেই থামলেন রাফা।

- Advertisement -

এদিন ম্যাচ জিতে জকোভিচ বলেন, প্যারিসে এটা আমার সেরা ম্যাচ। আর কেরিয়ারের সেরা তিনে থাকবে। নিজের শ্রেষ্ঠতম প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে, তাঁর প্রিয় কোর্টে খেলে জেতাটা সহজ নয়। প্রতিপক্ষের প্রশংসাও শোনা গিয়েছে জোকারের মুখে, রোলাঁ গারোয় রাফার অর্জন প্রসঙ্গে সমস্ত বিশেষণও যথেষ্ট নয়। ওর বিরুদ্ধে জেতা মাউন্ট এভারেস্টে ওঠার থেকে কম নয়। ফাইনালে স্টেফানোস সিসিপাসের মুখোমুখি হওয়া নিয়ে তাঁর বক্তব্য, এবারই প্রথম কোনও গ্র‌্যান্ড স্ল্যামের সেমিফাইনালে এমন দুর্ধর্ষ ম্যাচ খেললাম এমন নয়। আগেও এমন ম্যাচ খেলার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ফাইনাল খেলতে কোর্টে নেমেছি। গোটা কেরিয়ারে সবসময়ই আমার শরীর নিজেকে দ্রুত পরের চ্যালেঞ্জের জন্য তৈরি করেছে। ফাইনালে জিতলে দ্বিতীয়বার কেরিয়ার স্ল্যাম বা চারটি গ্র‌্যান্ড স্ল্যাম অন্তত দুবার করে জেতার নজির গড়বেন জোকার। ওপেন এরায় রয় এমার্সন ও রড লেভার ছাড়া কারও এই কৃতিত্ব নেই।

ম্যাচে ৫৫ বার আনফোর্সড এরর করেন নাদাল, ডাবল ফল্ট ৮ বার। দৃশ্যতই প্রথম সেটের পর ক্রমেই জোকারের সামনে বিভ্রান্ত হয়েছেন। ম্যাচ শেষে বললেন, ফরাসি ওপেন আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিযোগিতা। ফলে এই হার হতাশাজনক। তবে জীবন থেমে থাকে না। কারণ এটা একটা ম্যাচে হার ছাড়া আর কিছুই নয়। প্যারিসে ১০৮ নম্বর ম্যাচে ততীয় হার প্রসঙ্গে ১৩বারের চ্যাম্পিয়নের বক্তব্য, কোর্টে লড়লেও দিনটা আমার ছিল না। আমরা কখনও জিতি, কখনও হারি। তবে একটা ভালো সুযোগ ছিল। তার সঙ্গে ক্লান্তিও ছিল। এদিন জকোভিচ কোর্ট থেকে বেশি সাহায্য পেয়েছেন, মনে করছেন নাদাল।