পদ্ম ছাপ মারা মাস্ক পরে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার অভিযোগে বিহারের কৃষি মন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা

310

পটনা: নির্বাচনী আদর্শ আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে বিহারের কৃষিমন্ত্রী প্রেম কুমারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসন। বুধবার কোতয়ালি থানায় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। প্রেম কুমার এ বারেও গয়া কেন্দ্র থেকে বিজেপির প্রতীকে প্রার্থী হয়েছেন।

বিহারের ২০২০ বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম দিনে বিজেপি’র পদ্ম ছাপ মারা মাস্ক পরেই ভোটকেন্দ্রে গিয়েছিলেন প্রেম কুমার। এই ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আদর্শ আচরণ বিধির তোয়াক্কা না করে ভোটাদের প্রভাবিত করার অভিযোগ উঠেছে। এ কারণেই কৃষিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয় জেলা প্রশাসন।

- Advertisement -

গয়ার ২৩০ এরিয়ার সেক্টর ম্যাজিস্ট্রেট বিপিন কুমার স্থানীয় কোতওয়ালি থানায় এফআইআর করেন। আরপি আইন ১৯৫১-র ১৭১ (এফ)/১৮৮, ১২৮/১৩০ ধারায় এফআইআর (৪০৮/২০) রুজু হয়েছে। এদিকে, কোভিড বিধি লঙ্ঘনের কারণে এদিন ৮৯টি মামলা দায়ের হয়েছে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, ভোট দানের জন্য এদিন সাইকেলে চেপে নিজের ভোটকেন্দ্রে আসেন প্রেম কুমার। তাঁর মুখের মাস্কে বিজেপির প্রতীক পদ্মের ছাপ মারা ছিল। ওই মাস্ক পরে ভোটকেন্দ্রে ঢুকলে, ভোটের দায়িত্বে থাকা আধিকারিকরা মন্ত্রীকে আটকে দেন। তাঁর বিরুদ্ধে সরাসরি আদর্শ নির্বাচন বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়।

মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক এইচআর শ্রীনিবাস জানান, জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছেন। অভিযোগ, উনি শুধু দলীয় প্রতীকের মাস্ক পরে ভোটই দেননি। ভোটকেন্দ্র দাঁড়িয়ে দাবি করেন, উনিই জিতবেন। এর পরেই জেলাশাসকের নির্দেশে বিহারের কৃষিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়।

অভিযুক্ত কৃষিমন্ত্রীর দাবি, আদর্শ আচরণবিধি ভাঙার অভিপ্রায় ছিল না। তিনি বলেন, ‘বিজেপির প্রতীক লাগানো মাস্ক খুলতে ভুলে গিয়েছিলাম। নিজের ভুল বুঝতে পেরে সঙ্গে সঙ্গে মাস্ক খুলে ফেলি।’