দেশাত্মবোধক গানের তালে পা মেলালেন ইন্টার্ন সোনালি

হরষিত সিংহ, মালদা : দেশাত্মবোধক গানের তালে পা মিলিয়ে করোনাকে জয় করার বার্তা দিলেন মালদা মেডিকেলের ইন্টার্ন সোনালি ধবল। করোনা ওয়ার্ডে ডিউটির ফাঁকে সকলকে অনুপ্রাণিত করতে অভিনব এই প্রয়াস নিয়েছেন তিনি। পিপিই, মাস্ক, গ্লাভস পরা চিকিৎসকের নাচ। করোনা যোদ্ধা শুরু করে থেকে রোগীদের মনোবল চাঙ্গা করতে তাঁর এমন প্রয়াস বলে জানান ওই মহিলা চিকিৎসক।

আজকের দিনে দাঁড়িয়ে যখন সংক্রামিত ও তাঁর পরিবারকে অনেকে একঘরে করে দিচ্ছেন, তখন নিজের জীবনকে বাজি রেখে রাতদিন এক করে করোনা রোগীদের সেবা করে চলেছেন চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাঁদের এই মহান কাজকে কুর্নিশ জানাচ্ছে সমাজের সকলেই। সংক্রামিতদের চিকিৎসা করতে আসা চিকিৎসক ও নার্সরা দীর্ঘদিন পরিবার থেকে দূরে থাকছেন। পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন থেকে রাতদিন এক করে রোগীদের সেবায় নিজেদের নিয়োজিত করেছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। এমন পরিস্থিতিতে একটানা কাজ করতে গিয়ে অনেক চিকিৎসক, নার্স মানসিক চাপের মধ্যে পড়ছেন। তাঁদের মনোবল চাঙ্গা করতে ও রোগীদের অনুপ্রাণিত করতে বিভিন্ন সময়ে অভিনব প্রয়াস চালাচ্ছেন চিকিৎসক ও নার্সরা। তেমনই একটি উদাহরণ মালদা মেডিকেলের ইন্টার্নের এই নাচ।

- Advertisement -

সোনালি ধবলের বাড়ি বাঁকুড়ার চাঁদমারি ডাঙ্গায়। করোনা পরিস্থিতিতে তিনি ছয় মাস পরিবারের সঙ্গে দেখা পর্যন্ত করতে পারেননি। বর্তমানে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে কর্মরত। রাতদিন কাজ করতে করতে কিছুটা হলেও মানসিক চাপ বেড়েছে। তাই মানসিক চাপ কমাতে নাইট ডিউটিতে থাকাকালীন ওয়ার্ডের ফ্রেশ রুমে দেশাত্মবোধক হিন্দি গানের তালে পা মেলান সোনালিদেবী। শরীরে পিপিই, মুখে মাস্ক, মাথায় টুপি, হাতে গ্লাভস পরে এই নাচ নিজের মোবাইলে ক্যামেরায় বন্দি করেন সোনালি। এই নাচ তিনি তাঁর দিদিকে পাঠিয়ে দেন। বোনকে কুর্নিশ জানাতে নাচের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় অপলোড করে দেন সোনালির দিদি। মুহূর্তের মধ্যে সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। কুর্নিশ জানিয়ে বহু মানুষের কমেন্টে ভরে যায়।

চিকিৎসক সোনালি ধবল জানান, অভিনন্দন জানানোর জন্য ধন্যবাদ এমএসভিপি স্যারকে। করোনা রোগী থেকে শুরু করে চিকিৎসক ও নার্সদের অনুপ্রেরণা দিতে আমার এই পরিকল্পনা। মহিলা চিকিৎসকের এই অভিনব উদ্যোকে সাধুবাদ জানিয়েছে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি জানার পর ওই মহিলা চিকিৎসককে নিজের অফিসে ডেকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এমএসভিপি অমিতকুমার দাঁ। তিনি জানান, করোনা পরিস্থিতিতে এখন অনেকে মানসিক চাপের মধ্যে কাটাচ্ছেন। এমন পরিস্থিতিতে নাচের মাধ্যমে ভয়কে জয় করার বার্তা দিয়েছেন ওই তরুণী চিকিৎসক। আশা করি চিকিৎসকের এই পরিকল্পনা সকলকে অনুপ্রাণিত করবে।