শুধু সরকারি চাকরি পাওয়ার আশা করবেন না: মমতা

368

কলকাতা: তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসে ভার্চুয়াল ভাষণ থেকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে ওই সমাবেশ থেকেই আরও ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের কথা ঘোষণাও করেন তিনি। এ রাজ্যে যে শিল্পের জোয়ার আসছে সে কথা তুলে ধরে তিনি জানান, ছাত্র-ছাত্রীদের চাকরির জন্য চিন্তা করার কারণ নেই। তবে শুধুমাত্র সরকারি চাকরি পাওয়ার আশায় যেন সকলে বসে না থাকে। যেকোনও চাকরিতে তাঁরা যেন যোগদান করে। হয়তো তাতে পয়সা কিছু কম পাবে, কিন্তু বেকার থাকবে না।

তিনি উল্লেখ করেন, বিগত বাম জামানায় ছাত্রদের জন্য কিছু করা হয়নি। তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর ছাত্র-ছাত্রীদের সুযোগ সুবিধার ফিরিস্তি যেমন তুলে ধরেন, তেমনি করোনা আবহে স্কুল কলেজের পঠন পাঠন বন্ধ থাকার দরুণ পড়ুয়াদের মুষড়ে না পড়ার আহ্বান জানান। তবে, তিনি এদিন পরিষ্কার জানিয়ে দেন, আসন্ন দুর্গাপূজার পরই সমস্ত স্কুল-কলেজ চালুর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকার ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নানা বিধিনিষেধ চালু করে দিয়েছে। যদিও রাজ্য সরকার ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কিছু বিধিনিষেধ চালু রেখেছে বলে জানান মমতা।

- Advertisement -

এদিন তিনি অভিযোগ তোলেন যে, তাদের সঙ্গে রাজনীতিতে না পেরে বিজেপি এজেন্সিগুলিকে পিছনে লেলিয়ে দিচ্ছে। যেভাবে তৃণমূলের নেতৃত্বের বিরুদ্ধে একেরপর এক অভিযোগ আনা হচ্ছে তা সব মিথ্যে, আসলে বিজেপির একাধিক নেতা মন্ত্রী কয়লা পাচার কাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত। তাদের আড়াল করতেই এই পদক্ষেপ। ছাত্রদের মঞ্চ থেকে ছাত্র ও যুব আরও বেশি করে রাজনীতিতে আসার বার্তা দেন মমতা। এদিন শুধু সিবিআই নয়, কেন্দ্র মানবাধিকার কমিশনকে দিয়ে রাজ্যের প্রতি অবিচার করছে বলেও অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী।