মেটেলি, ১ ডিসেম্বরঃ গরুমারার বিভিন্ন নজর মিনারে ঢোকার টিকিটের সংখ্যা বৃদ্ধি করা, নিউ মাল জংশনে পর্যটকদের জন্য বিশেষ ট্রেনের স্টপেজ করা, পর্যটনকেন্দ্র মূর্তির সৌন্দর্যায়ন করার জোরাল দাবি জানানো হল। রবিবার মূর্তির একটি বেসরকারি রিসর্টে রিসর্ট মালিকদের সংগঠন গরুমারা ট্যুরিজম ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সাধারণ সভার আয়োজন করা হয়। সেখানে বিভিন্ন দাবিতে সরব হন রিসর্ট মালিকরা। এদিন সভা শুরুর আগে সংগঠনের সদস্য প্রয়াত রাজীব বিশ্বাসের আত্মার শান্তির জন্য এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন রিসর্টে খাদ্য, দূষণ নিয়ন্ত্রণ, অগ্নিনির্বাপকের সরকারি শংসাপত্র প্রদানের ক্ষেত্রে সরল পদ্ধতি করারও দাবি উঠেছে। এই সংগঠনে বাতাবাড়ি, ধূপঝোরা, মূর্তি, চালসা, মঙ্গলবাড়ি এলাকার প্রায় ৪৪টি বেসরকারি রিসর্টের মালিকরা রয়েছেন। বাকি রিসর্টগুলোকেও এই সংগঠনের আওতায় আসার আবেদন জানানো হয় এদিন।

সংগঠনের সভাপতি সোনা সরকার বলেন, ‘বিভিন্ন রিসর্টের সঙ্গে পর্যটন ব্যবসায় এখানকার গাড়ি চালক, দোকানদার সহ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত রয়েছেন স্থানীয় বহু মানুষ। আমরা এখানকার পরিবেশকে ঠিকঠাক রেখে পর্যটন ব্যবসার উন্নতি চাই। সংগঠনের তরফে যাবতীয় দাবির ভিত্তিতে আমরা সরকারকে আবেদন জানাবো।’ সংগঠনের সহ সভাপতি পরিমল রাউত বলেন, ‘মূর্তি সহ গরুমারা ও সংলগ্ন এলাকার বন্যপ্রাণী ও পরিবেশকে রক্ষা করার বার্তা নিয়ে আমরা সাইকেলে করে ‘দিদির বাড়ি’ যাত্রা করব। এখানকার পরিবেশকে রক্ষা করা সহ বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজের জন্য বেশ কিছু কর্মসূচিও এদিন নেওয়া হয়।’