প্রকৃতির কোলে ক্লাস পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষকের

152

দেবদর্শন চন্দ, কোচবিহার : করোনার আবহে দীর্ঘদিন বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এই অবস্থায় প্রকৃতির কোলে ভৌতবিজ্ঞানে পিছিয়ে পড়া মাধ্যমিক পড়ুয়াদের ক্লাস নিচ্ছেন সদ্য শিক্ষারত্ন পুরস্কারপ্রাপ্ত ডঃ আশুতোষ দত্ত। এমনকি পড়ানোর পাশাপাশি মক টেস্টও নিচ্ছেন তিনি। আশুতোষবাবু কোচবিহার-২ ব্লকের আমবাড়ি ধনীরাম হাইস্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক। তাঁর এই উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করছে শিক্ষামহল।

করোনার কারণে অনলাইনে ক্লাস চলছে। কিন্তু গ্রামীণ এলাকায় নেটওয়ার্ক এবং স্মার্টফোনের সমস্যার কারণে অধিকাংশ পড়ুয়ার পড়াশোনাই শিকেয় উঠেছে। তাই ছেলেমেয়েদের মধ্যে পড়ার আগ্রহ ধরে রাখতে এবার স্কুল সংলগ্ন খোলা মাঠে ক্লাস নিচ্ছেন আশুতোষবাবু। আমবাড়ি এলাকার অধিকাংশ পড়ুয়ারাই দরিদ্র পরিবারের। বিদ্যালয়ের পঠনপাঠনের ওপর নির্ভর করেই পড়ুয়ারা পড়াশোনা করে। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলও প্রতি বছর মোটামুটি ভালোই হয়। আশুতোষবাবু ওই বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক। একই ব্লকের খাগড়াবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের বুড়িরপাট এলাকায় তাঁর বাড়ি। কোচবিহারের আচার্য ব্রজেন্দ্রনাথ শীল মহাবিদ্যালয়ে রসায়ন নিয়ে তিনি পড়াশোনা করেছেন। এরপর উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তর করেছেন। গেট উত্তীর্ণ হয়ে এমটেক করার সুযোগ পেলেও তিনি অর্থের অভাবে সেসময় পড়তে পারেননি। এরপর শুরু হয় তাঁর কর্মজীবন। ১৯৯৭ সালে দার্জিলিংয়ে কেমিস্ট হিসেবে একটি কেমিক্যাল ফ্যাক্টরিতে কাজ করেন আশুতোষবাবু। এরপর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তিনি গবেষণা করেন। ২০১৯ সালে তিনি পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। বর্তমানে বায়োকেমিকের ওপর গবেষণার কাজ করছেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের শিক্ষারত্ন সম্মানের পাশাপাশি তাঁর ঝুলিতে রয়েছে একাধিক পুরস্কার।

- Advertisement -

তাঁর ক্লাস নেওয়া সম্পর্কে আশুতোষবাবু বলেন, গ্রামীণ এলাকা হওয়ার কারণে বহু পড়ুয়া অনলাইনে ক্লাস করতে পারছে না। তাই একটি নির্দিষ্ট এলাকায় গিয়ে মাধ্যমিক পড়ুয়াদের নিয়ে ক্লাস করছি। পাশাপাশি, মক টেস্টও নিচ্ছি। এতে তাদের কিছুটা হলেও সুবিধা হবে। ছাত্র প্রবীর রায় বলে, বেশ কিছুদিন থেকেই মাস্টারমশাই ক্লাস নিচ্ছেন। স্কুল বন্ধ থাকলেও এভাবে ক্লাস নেওয়ায় সুবিধা হচ্ছে। একই অভিমত অন্য পড়ুয়া জিৎ রায়েরও। এ বিষয়ে আমবাড়ি ধনীরাম হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক সাবেদুল ইসলাম জানান, ছাত্রছাত্রীদের জন্য উনি পরিশ্রম করেন। পড়ুয়াদের পড়ানোর পাশাপাশি মক টেস্টও নিচ্ছেন। খাতা, কলম সহ বিভিন্ন শিক্ষাসামগ্রী দিয়ে তিনি পড়ুয়াদের মাঝেমধ্যেই সাহায্য করেন।