রাজনৈতিক প্রচারে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন, আশঙ্কা স্বাস্থ্যকর্তার

158

জলপাইগুড়ি: নির্বাচনি প্রচারে করোনা নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না কেউই। মঞ্চে থাকা নেতাই হোক বা উপস্থিত কর্মী-সমর্থকরা। ফলে করোনার সংক্রমণ ফের বাড়তে শুরু করেছে। এখনই এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে ২ মে ভোট গণনার পর থেকে করোনা সংক্রমণ আরও ঊর্ধ্বমুখী হবে বলে মনে করছে স্বাস্থ্য দপ্তর। রাজনৈতিক দলের নেতা ও প্রার্থীরা যাতে নিজেদের প্রচারে কর্মীদের দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেন তাহলে সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব বলে মত স্বাস্থ্য কর্তাদের। মার্চের শেষ সপ্তাহ থেকে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত উত্তরবঙ্গের সবকটি জেলায় নতুন করে করোনা পজিটিভ রোগীর সংখ্যা প্রায় ৭০০ জনের কাছাকাছি। মঙ্গলবার জলপাইগুড়ি মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ রমেন্দ্রনাথ প্রামাণিককে পাশে নিয়ে এমনই আশঙ্কার কথা শুনিয়েছেন স্বাস্থ্য দপ্তরের উত্তরবঙ্গের ওএসডি ডাঃ সুশান্ত রায়।

নির্বাচনের দিন কোভিড স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভোট করানোর ব্যবস্থা করছে কমিশন। কিন্তু রাজনৈতিক দলগুলির প্রচারে, মিছিলে যেভাবে জমায়েত করা হচ্ছে তাতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় সংক্রমণ বাড়ছে। সরকারি হাসপাতালে উত্তরবঙ্গে এই মুহূর্তে ৭০০টি বেড আছে। কিন্তু পরিস্থিতি যাতে হাতের বাইরে না যায় সেজন্য রাজনৈতিক দলগুলোকে এগিয়ে আসার আবেদন জানান সুশান্তবাবু।

- Advertisement -