ট্যাংক ধ্বংসকারী লেজার গাইডেড মিসাইলের পরীক্ষায় সফল ভারত

630

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: আত্মনির্ভরতার দিকে আরও এককদম এগিয়ে গেল ভারত। ট্যাংক ধ্বংসকারী লেজার গাইডেড মিসাইলের পরীক্ষায় ভারত সফল হয়েছে। বুধবার ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (ডিআরডিও) লেজার-গাইডেড অ্যান্টি ট্যাংক গাইডেড মিসাইল (এটিজিএম)-এর পরীক্ষা করেছে। তিন কিলোমিটার দূরে থাকা লক্ষ্য বস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম হয়েছে ওই মিসাইল। আহমেদনগরের কেকে রেঞ্জের এমবিটি অর্জুন ট্যাংক থেকে ওই মিসাইলের সফল উৎক্ষেপণ হয়েছে। এই সাফল্যের জন্য কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং টুইট করে ডিআরডিওকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

- Advertisement -

কিছুদিন আগেই হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকেলের (HSTDV) পরীক্ষায় ভারত সফল হয়েছে। চতুর্থ দেশ হিসেবে এই প্রযুক্তির পরীক্ষায় সফল হয় ভারত। এর আগে আমেরিকা, রাশিয়া, চিন HSTDV-এর পরীক্ষায় সফল হয়েছিল। সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে এটা তৈরি করেছে ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (DRDO)। এবার লেজার গাইডেড মিসাইলের পরীক্ষায় ভারত সফল হল। এটাও সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি।

ভারতের সঙ্গে চিন ও পাকিস্তানের সম্পর্ক ক্রমশ জটিল হচ্ছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা ও নিয়ন্ত্রণ রেখায় উত্তেজনা বাড়ছে। নিয়ন্ত্রণ রেখায় পাকিস্তান মাঝে মধ্যেই সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে গুলি চালাচ্ছে। কাশ্মীর নিয়েও উস্কানিমূলক বক্তব্য রাখছে পাকিস্তান। অন্যদিকে, ১৫ জুন পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হন। গালওয়ান সংঘর্ষের পর থেকেই দু’দেশের সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে। বেশ কয়েকবার সেনা-কমান্ডার স্তরে আলোচনা হলেও সীমান্তে উত্তেজনা কমেনি। পাকিস্তান ও চিনের মোকাবিলায় প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে ভারতও। প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। যার জন্য ডিআরডিও একের পর এক সমরাস্ত্রের পরীক্ষা করে চলেছে।