বন্যাপ্রবণ এলাকা চিহ্নিত করতে ড্রোনে নজরদারি

101

চাঁদকুমার বড়াল, কোচবিহার : ড্রোন দিয়ে ছবি তুলে কোচবিহার জেলার নদীতীরবর্তী বন্যাপ্রবণ এলাকাগুলি চিহ্নিত করেছে কোচবিহার জেলা প্রশাসন। কোচবিহারে এই প্রথম এমন উদ্যোগ নেওয়া হল। গত সপ্তাহে সাতদিন ধরে জেলার ১২টি ব্লকে বিডিওদের নেতৃত্বে এই কাজ চলেছে। সবমিলিয়ে ১২টি ব্লকে ২৩৬টি ভিডিও এবং বহু ছবি তোলা হয়েছে। এই সমীক্ষায় প্রাপ্ত তথ্য থাকবে জেলা প্রশাসন ও জেলা বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের কাছে। এবারের বর্ষায় এই এলাকগুলি জলমগ্ন হলে যাতে সহজেই উদ্ধারকাজ চালানো যায়, তার জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিপর্যয় মোকাবিলা নিয়ে বিস্তারিত পরিকল্পনাও করা হয়েছে।

কোচবিহারের জেলা শাসক পবন কাদিয়ান বলেন, বর্ষার মরশুমের জন্য একটি প্ল্যানিং করা হয়েছে। সেন্ট্রালাইজড একটা স্ট্রাকচারও তৈরি করা হয়েছে। জেলায় এই প্রথম নীচু জমি এলাকা, বন্যাপ্রবণ এলাকাগুলির ছবি ড্রোন দিয়ে সার্ভে করে রাখা হয়েছে। এর ফলে বর্ষায় প্রশাসনের কাজ করতে সুবিধা হবে।

- Advertisement -

ড্রোনের মাধ্যমে কোচবিহার-১ ব্লকে ২৩টি, কোচবিহার-২ ব্লকে ২১টি, দিনহাটা-১ ব্লকে ৩২টি, দিনহাটা-২ ব্লকে ৪৩টি, মাথাভাঙ্গা-১ ব্লকে ১৫টি, মাথাভাঙ্গা-২ ব্লকে ২২টি, তুফানগঞ্জ-১ ব্লকে ১৯টি, তুফানগঞ্জ-২ ব্লকে ১৮টি, সিতাই ব্লকে ১২টি, শীতলকুচি ব্লকে  ১৩টি, মেখলিগঞ্জ ব্লকে ১৬টি এবং হলদিবাড়ি ব্লকে ২টি ভিডিও তোলা হয়েছে। একইসঙ্গে প্রচুর ছবিও তোলা হয়েছে।

কোচবিহার জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, এই উদ্যোগের ফলে পরবর্তীতে বোঝা যাবে, এলাকাগুলি কতটা জলমগ্ন হয়েছে। পরিস্থিতি অনুযায়ী কাজে নামা যাবে। জেলায় তিনটি সরকারি বোট রয়েছে। একটি রয়েছে মাথাভাঙ্গা, একটি তুফানগঞ্জে, একটি কোচবিহারে। একইসঙ্গে জেলায় ব্যক্তিগত মালিকানাধীন কয়টি নৌকা রয়েছে, সেই তালিকাও তৈরি করে রাখা হচ্ছে, যাতে প্রয়োজনে সেগুলি ব্যবহার করা যায়। নদীবাঁধগুলি সংস্কার করা হচ্ছে।  বেবিফুড, চিঁড়ে, গুড় সহ শুকনো খাবার, ওষুধ মজুত রাখা হচ্ছে। ফ্লাড সেন্টারগুলির অবস্থা, জেলায় কাঁচা বাড়ির সংখ্যা ইত্যাদির তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। যদি ফ্লাড সেন্টারগুলি সংস্কারের প্রয়োজন হয়, তাও করে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন দপ্তরের সঙ্গে বৈঠক করে বর্ষায় তাদের মধ্যে সমন্বয় রেখে কাজ করার নির্দেশ জেলা প্রশাসনের তরফে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, ১০ থেকে ১৪ জুনের মধ্যে জেলায় প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বিডিওদের সঙ্গে জেলা প্রশাসনের এই বিষয়গুলি নিয়ে বৈঠক হয়েছে।