সুশান্ত মামলায় মাদক যোগের তদন্ত, রিয়া-শৌভিকের মুম্বইয়ের বাড়িতে তল্লাশি

351
সংগৃহীত

মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলায় শুক্রবার তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী ও রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তীর বাড়িতে হানা দিল নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। পাশাপাশি তারা হানা দেয় সুশান্তের ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডার বাড়িতেও।

এনসিবি-র আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এনডিপিএস আইন অনুযায়ী, তাঁদের বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছে। এনসিবি-র ডেপুটি ডিরেক্টর কেপিএস মালহোত্রা জানিয়েছেন, এটা নিয়মমাফিক পদ্ধতি, যা অনুসরণ করা হচ্ছে। রিয়া ও স্যামুয়েল মিরান্ডার বাড়িতে রেইড চলছে। সুশান্ত ইশ্যুতে ইতিমধ্যে মাদক পাচারের মামলায় এনসিবি-র তরফে দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, গত ১৪ জুন মুম্বইয়ের বান্দ্রার ফ্ল্যাটে সুশান্ত সিং রাজপুতের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। অভিনেতার মৃত্যুতে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা। আত্মহত্যা নাকি খুন? সোশ্যাল মিডিয়ায়ও প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন সুশান্তের বাবা কেকে সিং।

১৯৮৬ সালের পাটনায় জন্মগ্রহণ করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। পরবর্তীকালে তাঁর পরিবার দিল্লিতে চলে আসে। ২০০৮ সালে একতা কপূরের প্রযোজনায় ‘কিস দেশ মে হ্যাঁ মেরা দিল’ সিরিয়ালে প্রথম বড়পর্দায় দেখা যায় তাঁকে। পরের বছরই ‘পবিত্র রিস্তা’ সিরিয়ালে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। এই সিরিয়ালে অভিনয় করতে করতে বেশ কিছু রিয়্যালিটি শোয়ে অংশ নেন তিনি।

অভিষেক কপূরের ‘কাই পো ছে’ তাঁর প্রথম ছবি। ২০১৩-তে মুক্তি পাওয়া ‘কাই পো ছে’-তে সুশান্তের অভিনয়ের প্রশংসা কুড়োয়। এরপর ‘শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স’, ‘পিকে’, ‘ডিটেক্টিভ ব্যোমকেশ বক্সি’, ‘কেদারানাথ’-র মতো ছবিতে নিজের অভিনয় দক্ষতা ছাপ রাখেন তিনি। মহেন্দ্র সিংহ ধোনির বায়োপিক ‘এমএস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’-তে তাঁর অভিনয় সাড়া ফেলে দেয়। শ্রদ্ধা কাপুরের বিপরীতে ‘ছিচোরে’-তে বড়পর্দায় শেষ দেখা গিয়েছিল তাঁকে। নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়া ‘ড্রাইভ’-এ তাঁকে দেখা গিয়েছে। ডিজনি+হটস্টারে মুক্তি পাওয়া তাঁর শেষ সিনেমা ‘দিল বেচারা’ও প্রশংসা কুড়িয়েছে।