ফের করোনার সংক্রমণ, জয়গাঁয় বাড়ল কনটেনমেন্ট জোন

201

সমীর দাস, হাসিমারা: কালচিনি ব্লকে ফের ২ করোনা আক্রান্তের খবরে উদ্বেগ ছড়িয়েছে ব্লকের বিভিন্ন এলাকায়। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর ও ব্লক প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই দুই করোনা আক্রান্তের একজন পুরানো হাসিমারার চেকপোস্ট এলাকার ব্যবসায়ী। অন্যজন জয়গাঁর প্রগতি টোল এলাকার বাসিন্দা, তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক স্তরের নেতা বলে স্থানীয় সূত্রে খবর। তাদের ২ জনকেই তপসিখাতার কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে।

ঘটনার জেরে পুরানো হাসিমারার চেকপোস্ট এলাকা ও জয়গাঁর প্রগতি টোল এলাকাকে কনটেনমেন্ট জোন ঘোষনা করে ব্লক প্রশাসনের তরফে বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে ঘিরে ফেলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কালচিনির বিডিও ভূষণ শেরপা। তিনি বলেন, এলাকার বাসিন্দারা যাতে বাড়িতেই থাকেন তার জন্য পদক্ষেপ করা হচ্ছে। মঙ্গলবার পুরানো হাসিমারায় দুই ভায়ের করোনা টেস্টে পজেটিভ আসার পড় এদিন স্থানীয় এক বাসিন্দার করোনা আক্রান্তের খবরে এলাকার বাসিন্দারা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, পুরানো হাসিমারার ওই ব্যক্তি প্রায় এক সপ্তাহ আগে ব্যবসার কাজে শিলিগুড়ি গিয়েছিলেন। সেখানে থেকে ফেরার পড় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন‌। এরপড়েই তার লালা পরীক্ষা করা হয়। এই কয়েকদিন তিনি বাড়ি থেকে না বের হলেও তাঁর সঙ্গে অনেকেই দেখা করতে আসেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। ওই ব্যক্তির পরিবারের সদস্যরা সোয়াব টেস্ট করিয়েছেন।

এদিকে, জয়গাঁর বাসিন্দা তৃণমূলের করোনা আক্রান্ত নেতা কোনও দলীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেছেন কিনা প্রশাসন তার খতিয়ে দেখছে। অন্যদিকে, বুধবার পুরানো হাসিমার ও জয়গাঁর কনটেনমেন্ট জোন এলাকা নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখেন জয়গাঁর এসডিপিও এরটি ভুটিয়া ও হাসিমারা পুলিশ ফাঁড়ির ওসি প্রেমকুমার থামি। ব্লক স্বাস্থ্য কর্তারাও এদিন এলাকায় পরিদর্শন করেন।

ব্লকে করোনা আক্রান্ত বাড়তে থাকায় জয়গাঁ, কালচিনি, হ্যামিল্টনগঞ্জ ও দলসিংপাড়া এলাকায় লকডাউনের দাবি তুলেছেন বাসিন্দারা। পুরানো হাসিমারা ব্যবসায়ি সমিতি ইতিমধ্যে এলাকায় লকডাউন ঘোষনা করেছে।