পুজো কার্নিভালে এবার ‘না’, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

464

কলকাতা: করোনা আবহে চলতি বছরের ‘পুজো কার্নিভাল’ বাতিল ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে পুজো সংক্রান্ত বৈঠকে এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চলতি বছর একাধিক বিধিনিষেধ মেনে তবেই পুজো করতে পারবে পুজো কমিটিগুলি। সেক্ষেত্রে ইতিমধ্যেই একাধিক নিয়ম মানার অনুরোধ জানিয়েছেন মমতা। নিউ নর্মালে কীভাবে হবে পুজো তা নিয়ে পুজো উদ্যোক্তা ও ক্লাব সদস্য এবং সরকারি আধিকারিকদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী একটি বৈঠকও সারলেন।

সেখানে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘করোনাকে লকডাউনে পাঠিয়ে দিয়ে এ বার পুজো হোক। তবে পুজোর ব্যবস্থাপনায় একটু আঁটোসাঁটো ব্যবস্থা থাকুক।‘

- Advertisement -

মুখ্যমন্ত্রী এদিন পুজো কমিটিগুলিকে আরও বলেছেন, ‘একটু খোলামেলা মণ্ডপ করতে। পারলে মণ্ডপের ছাদ খোলা রাখুন। ছাদ খোলা রাখা সম্ভব না হলে চারপাশে খোলামেলা জায়াগা থাকুক। মণ্ডপের ভিতরে চক দিয়ে গোল গোল দাগ কেটে দিন। যাতে ভিড় নিয়ন্ত্রণ করা যায়। দর্শনার্থীদের মুখে যেন অবশ্যই মাস্ক থাকে। শুধু তাই নয়, প্যান্ডেলের অন্তত আধ কিলোমিটারের মধ্যে কেউ এসে গেলেই তাঁদের মাস্ক আছে কিনা দেখা হোক। যে সব পুজো কমিটির পক্ষে দর্শনার্থীদের মাস্ক ও স্যানিটাইজার দেওয়া সম্ভব, তাদের অনুরোধ তারা সেটা নিয়মমাফিক সেগুলি বণ্টন করে।‘

পাশাপাশি এদিন মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ, মণ্ডপে এন্ট্রান্স ও এগজিট আলাদা করে রাখতে হবে। পুজোর কর্মকর্তা ও স্বেচ্ছাসেবকেরাও যেন অবশ্যই মাস্ক পরে পুজো প্যান্ডেলে থাকেন। যদি সম্ভব হয় তাঁরা যেন ফেস শিল্ড ব্যবহার করেন। পুজোর দিনগুলিতে পুজো মণ্ডপ, প্যান্ডেল চত্বর এবং যে এলাকায় পুজো হচ্ছে সেখানে যেন যথোপচিত ব্যারিকেড সাথে মার্কিংয়ের ব্যবস্থা ইত্যাদি থাকে। পুলিশ ও কমিটিগুলির মধ্যে যেন একটা সমন্বয় বজায় থাকে। একটু বড় পুজোগুলির ক্ষেত্রে পাবলিক অ্যানাউন্সমেন্ট সিস্টেম রাখতে বলেছেন।