জল ছাড়া নিয়ে ডিভিসিকে তোপ মুখ্যমন্ত্রীর

198

আসানসোল: ডিভিসির ছাড়া জলে বর্তমানে রাজ্যের দুই জেলা বর্ধমান ও হাওড়া প্লাবিত হয়ে পড়েছে। এইসব জেলায় ক্ষতিগ্রস্থদের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। শুক্রবার ডিভিসি মাইথন ও পাঞ্চেত থেকে জল ছাড়ার পরিমাণ দুপুরে দেড় লক্ষ কিউসেক করেছিল। কিন্তু দুপুর তিনটের পরে নতুন করে দামোদর ভ্যালি রিভার রেগুলেটরি কমিশন সমীক্ষা করে সেই জল ছাড়ার পরিমাণ সামান্য কমিয়ে দুই বাঁধ থেকে ১ লক্ষ ৪৭ হাজার কিউসেক করেছে। তবে এই জল দুর্গাপুর ব্যারাজে যখন পৌঁছাবে তখন সেই জলের পরিমাণ আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা। কারণ আসানসোল শিল্পাঞ্চলে বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকালের অতিভারী বৃষ্টিতে ছোট ছোট নদী ফুলেফেঁপে উঠেছে। সেই কারণে দুর্গাপুর থেকে আরো বেশি মাত্রায় জল ছাড়া হচ্ছে। শনিবার মুখ্যমন্ত্রী এইসব জেলার অবস্থা খতিয়ে দেখতে আকাশপথে পরিদর্শন করবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবারও দক্ষিণবঙ্গের দুই বর্ধমান জেলায় বন্যার পরিস্থিতির জন্য ডিভিসিকে দায়ী করেছেন। তিনি অভিযোগ করেছেন, এটা ‘ম্যান মেড বন্যা’। রাজ্যকে না জানিয়ে ডিভিসি বিপুল পরিমান জল ছেড়ে দেওয়াতেই বারবার প্লাবিত হচ্ছে এইসব জেলাগুলি। শুধু তাই নয় তিনি আরো অভিযোগ করেন ডিভিসি ঠিকমতো বাঁধ গুলো থেকে পলি সংস্কার করেনি। যদি তা করত তাহলে ব্যারাজে আরো দু থেকে তিন লক্ষ কিউসেক জল রাখতে পারা যেতো।
অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যর প্রতিক্রিয়ায় ডিভিসির চিফ ইঞ্জিনিয়ার দেবাশীষ দেব বলেন, ‘ডিভিসি নিজেদের ইচ্ছেতে জল ছাড়তে পারে না। পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খন্ড ও ডিভিসির প্রতিনিধিদের নিয়ে কেন্দ্রীয় জল কমিশন আছে। রাজ্যগুলির সঙ্গে আলোচনা করে ও অনুমতি নিয়ে কেন্দ্রীয় জল কমিশন জল ছাড়ার নির্দেশ দেয়। তারপর জল ছাড়া হয়।’

- Advertisement -