দেশে ফের ভূমিকম্প, এবার কাঁপল হরিয়ানা

271

অনলাইন ডেস্ক: দেশে ফের ভূমিকম্প। এবার কেঁপে উঠল হরিয়ানা।

দিল্লি, কাশ্মীর, গুজরাত, মহারাষ্ট্রের পর এবার হরিয়ানার রোহতক জেলায় মৃদু মাত্রার ভূমিকম্প হল। বৃহস্পতিবার ভোর ৪ টে ১৮ মিনিটে রোহতকে কম্পন অনুভূত হয়েছে। রিখটর স্কেলে ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ২.১। ভূমিকম্পের উৎসস্থল মাটি থেকে ৫ কিলোমিটার গভীরে ছিল।

- Advertisement -

রোহতক থেকে ১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে কম্পন অনুভূত হয়েছে। তবে কম্পনের ফলে কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানা গিয়েছে। ভোরে ভূমিকম্প হওয়ায় অনেকেই ঘুমিয়ে থাকায় বাসিন্দারা কম্পনের বিষয়টি সেভাবে টের পাননি।

বুধবার মহারাষ্ট্রের মুম্বইয়ে ভূমিকম্প হয়। সকাল ১১.৫১ নাগাদ বাণিজ্যনগরী লাগোয়া এলাকায় কম্পন অনুভূত হয়। রিখটর স্কেলে তীব্রতা ছিল ২.৫। ন্যাশনাল সেন্টার ফর সিসমোলজি (এনসিএস) জানিয়েছিল, মুম্বই থেকে ১০৩ কিমি উত্তরে কম্পনের উৎসস্থল ছিল। কম্পনের ফলে কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানা গিয়েছে। কম মাত্রার হলেও এলাকায় কম্পনের জেরে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়ায়।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন থেকেই দেশের নানা প্রান্তে কম্পন অনুভূত হচ্ছে। রবি, সোম ও মঙ্গল- পরপর ৩ দিন গুজরাতে ভূমিকম্প হয়। মঙ্গলবার সকালে কাশ্মীরের বিস্তীর্ণ অঞ্চল কেঁপে ওঠে। ওইদিন সকাল ৭টা ৩মিনিট নাগাদ তাজিকিস্তানের দুশানবে থেকে ৩৪১ কিমি পূর্ব-দক্ষিণপূর্বে জোরালো কম্পন অনুভূত হয়। রিখটর স্কেলে কম্পনের তীব্রতা ছিল ৬.৮। তারই জেরে প্রবলভাবে কেঁপে ওঠে ভূস্বর্গ।

তার আগে দিল্লি ও আন্দামানে ভূমিকম্প হয়। ভূমিকম্প গত একমাসে বেশ কয়েকবার কেঁপে ওঠে রাজধানী। ১২ এপ্রিল থেকে ২৯ মে পর্যন্ত দিল্লি-এনসিআর’এ ১০ বার কম্পন অনুভূত হয়েছে। এই সময়ে উত্তরাখন্ড ৪ বার ও হিমাচলপ্রদেশ ৬ বার কেঁপে ওঠে।

একের পর এক ভূমিকম্প ভূবিজ্ঞানীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। তাঁদের মতে, একের পর এক স্বল্প মাত্রার কম্পন বড় ভূমিকম্পের ইঙ্গিত নিয়ে আসছে। আইআইটি ধানবাদের সিসমোলজি বিভাগের জিওফিজিক্সের অধ্যাপক পিকে খান জানান, একের পর এক ছোট মাত্রার কম্পন থেকেই বড় ভূমিকম্পের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। এই বিষয়ে কেন্দ্রের সতর্ক হওয়া উচিত।