মেসিদের পথে বাধা এক আর্জেন্টাইন

সুমন্ত চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা : উরুগুয়ের বিরুদ্ধে স্বস্তির জয়। আর সেই জয়ের স্বাদকে সঙ্গী করেই কোপা আমেরিকায় নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা। প্রতিপক্ষ প্যারাগুয়ে। যেখানে এক আর্জেন্টাইন কোচের ফুটবল মস্তিষ্কই বাধা লিওনেল মেসির দলের সামনে।

এডুয়ার্ডো বারিসো ম্যাগনোলো। ৫১ বছরের আর্জেন্টাইন কোচের হাত ধরে কোপা আমেরিকার নকআউটে যাওয়ার স্বপ্ন দেখছে প্যারাগুয়ে। আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা, রিকেলমেদের সঙ্গে খেলেছেন ডিফেন্ডার বারিসো। খেলেছেন কোপা আমেরিকাও। কোচিং করিয়েছেন লা লিগার সেভিয়া, অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের মতো ক্লাবে। তাই মেসি নামক বিশ্বের সেরা ফুটবল নক্ষত্র প্রতিপক্ষ গোলের সামনে কতটা ভয়ংকর, তা ভালোই জানেন তিনি।

- Advertisement -

প্রথম ম্যাচে বলিভিয়াকে ৩-১ গোলে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে থাকলেও মেসি এবং তাঁর দলকে যথেষ্ট সমীহ করছে প্যারাগুয়ে শিবির। মঙ্গলবার ব্রাসিলিয়ার মানে গ্যারিঞ্চা স্টেডিয়ামে জিতলে কোয়ার্টার ফাইনালের পথে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে দল। সেটা মাথায় রেখেই মেসিকে আটকে বাজিমাতের ভাবনায় বারিসোর দল।

কোপায় শুরুটা ভালো না হলেও ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। চিলি ম্যাচে দুরন্ত ফ্রি-কিকে গোল করেছিলেন, উরুগুয়ে ম্যাচে গোল করিয়েছেন সতীর্থ গুইডো রডরিগেজকে দিয়ে। পরপর দুম্যাচে সেরা ফুটবলার স্বীকৃতি আদায় করে নিয়েছেন এলএম টেন। প্যারাগুয়ে রক্ষণ ভাঙতে ছবারের ব্যালন ডি’অর বিজেতার দিকেই তাকিয়ে গোটা দল। দুম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ বি-র শীর্ষে রয়েছে আর্জেন্টিনা। মঙ্গলবার জিতলে শেষ আট নিশ্চিত। প্যারাগুয়ে ম্যাচেই সেই লক্ষ্যপূরণ করে ফেলতে মরিয়া আর্জেন্টাইন শিবির।

চিলি ম্যাচের ত্রুটি ঢাকতে উরুগুয়ের বিরুদ্ধে দলে একাধিক পরিবর্তন করেছিলেন কোচ লিওনেল স্কালোনি। সেই পরিকল্পনা কাজেও লেগেছিল। রক্ষণে নিকোলাস ওটামেন্ডির পাশে নজর কেড়েছেন ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো। মাঝমাঠে গুইডো রডরিগেজ, রডরিগো ডে পলরা। তবে আপফ্রন্টে নীল-সাদার জার্সিতে গোল করার লোকের অভাব স্পষ্ট। বিশেষ করে লওতারো মার্টিনেজের ফর্ম চিন্তায় রাখবে স্কালোনিকে। সবকিছু ঠিক থাকলে প্যারাগুয়ে ম্যাচে মেসির পাশে শুরু করতে পারেন অভিজ্ঞ সার্জিও আগুয়েরো।

লাতিন আমেরিকার দুদেশের সাক্ষাতে বরাবর প্যারাগুয়েকে টেক্কা দিয়েছে আর্জেন্টিনা। তবে শেষ সাক্ষাতে প্যারাগুয়ের বিরুদ্ধে জিততে পারেনি মেসির দল। সেই ফলাফলই এখন বাড়তি অক্সিজেন ফর্মে থাকা অ্যাঞ্জেল রোমেরোদের কাছে।