পাহাড়ি এলাকায় শিক্ষার পরশ কর্মসূচি

111

মেটেলি: সমগ্র শিক্ষা মিশনের উদ্যোগে জলপাইগুড়ি জেলার প্রত্যন্ত এলাকাগুলিতে শিক্ষার পরশ কর্মসূচি হচ্ছে। সোমবার মেটেলি ব্লকের পাহাড়ি এলাকা সামসিং ও মেটেলি পাবলিক লাইব্রেরী প্রাঙ্গণে এই কর্মসূচি হয়। পৃথকভাবে এদিনের দুই শিবিরে দারুণ সাড়া পরে। এদিন মেটেলি ব্লকের এলাকায় কর্মসূচিতে রাজা দত্ত ছাড়াও প্রসেনজিৎ চৌধুরী, মনোহর প্রসাদ, রঞ্জিত রায় প্রমুখ শিক্ষক-শিক্ষিকারা শিবির পরিচালনা করেন। সামসিংয়ে ৬৪ জন এবং মেটেলি পাবলিক লাইব্রেরিতে ১৯ জন পড়ুয়া শিবিরে অংশ নিয়েছেন। শিবিরে পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণির পড়ুয়ারা অংশগ্রহণ করছে বলে জানা যায়।

জলপাইগুড়ির সমগ্র শিক্ষা মিশনের কো-অর্ডিনেটর রাজা দত্ত বলেন, ‘জেলা শাসকের উদ্যোগে গত ৬ অগাস্ট থেকে জলপাইগুড়ি জেলাতে শিক্ষার পরশ কর্মসূচি হচ্ছে। জেলার কিছু প্রত্যন্ত এলাকাতে মোবাইল নেটওয়ার্কে সমস্যা রয়েছে। এই সমস্ত এলাকার পড়ুয়ারা অনলাইন ব্যবস্থার মাধ্যমে পঠন-পাঠনে সমস্যায় পড়ে। এই সমস্ত এলাকাগুলিতে পৌঁছে শিক্ষক-শিক্ষিকারা শিক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে তথ্য আদান-প্রদান করছে। পড়ুয়ারাও শিক্ষক-শিক্ষিকাদের কাছ থেকে সরাসরি তাদের জিজ্ঞাসার উত্তর জেনে নিতে পারছে। প্রত্যন্ত এলাকা ভিত্তিতে দেড় থেকে দুই ঘণ্টা কর্মসূচি চলছে। যাবতীয় কর্মকাণ্ড করোনাবিধি মেনেই করা হচ্ছে। খোলামেলা স্থানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই কর্মকাণ্ড হচ্ছে। এলাকাগুলিতে শিক্ষার পরশ ট্যাবলো গাড়িও পৌঁছে যাচ্ছে। ট্যাবলোতে প্রজেক্টর, হোয়াইট বোর্ড, প্রিন্টার ইত্যাদি থাকছে। পড়ুয়াদের সংখ্যা সীমাবদ্ধ রাখা হচ্ছে। প্রতি এলাকায় তিন থেকে চারজন শিক্ষক যাচ্ছেন।’

- Advertisement -