ভারসাম্য হারিয়ে গঙ্গায় তলিয়ে গেল আটটি ট্রাক

870

মানিকচক: পণ্যবাহী জাহাজের রেলিং ভেঙে গঙ্গায় তলিয়ে গেল আটটি ট্রাক। মালদা জেলার মানিকচক ঘাটে গঙ্গায় সোমবার সন্ধে ৭টা নাগাদ এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। এদিন ঝাড়খণ্ড থেকে পাথরবোঝাই হয়ে পণ্যবাহী জাহাজে করে ১০টি ট্রাক মানিকচকে আসছিল। ট্রাকগুলি মানিকচক ঘাটে নামার সময় একদিকে চলে আসায় ভারসাম্য হারিয়ে আটটি ট্রাক পণ্যবাহী জাহাজের রেলিং ভেঙে গঙ্গায় তলিয়ে যায়। ওই জাহাজে পণ্যবাহী লরির খালাসি ও চালক মিলিয়ে প্রায় ২০-২২ জন ছিলেন বলে জানা গিয়েছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌরচন্দ্র মণ্ডল। তিনি বলেন, এদিন বিকেলে ঝাড়খণ্ডের দিক থেকে একটি পণ্যবাহী জাহাজে করে পাথরবোঝাই ১০টি ট্রাক মানিকচকের দিকে আসছিল। মানিকচক ঘাটে নামার সময় গাড়িগুলি একদিকে চলে যায়। ফলে ভেসেলের ভারসাম্য হারিয়ে এবং রেলিং ভেঙে আটটি ট্রাক গঙ্গায তলিয়ে যায়। ট্রাকের চালক ও খালাসি মিলিয়ে বেশ কয়েকজন এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। গৌরবাবু বলেন, উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। অন্ধকারে ভরা গঙ্গায় তল্লাশি চালাতে সমস্যা হচ্ছে। তবে আমরা এই কাজে কোনও খামতি রাখছি না। এদিন রাত পৌনে ৯টা নাগাদ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন মালদা জেলা শাসক রাজর্ষি মিত্র, জেলা পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া সহ জেলার পদস্থ পুলিশ ও প্রশাসনিক কর্তারা। দুর্ঘটনার পর স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটইনাস্থলে ভিড় জমান।

- Advertisement -

রাজমহল থেকে মানিকচক পৌঁছানোর সময় যেখানে নোঙর পড়ে তার আগে আটটি ট্রাক ডুবে যায়। রাতে ট্রাকচালক এবং খালাসি মিলিয়ে মোট পাঁচজনকে উদ্ধার করা গিয়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। তবে ওই পণ্যবাহী লঞ্চটিতে বেশকিছু যাত্রী ছিলেন বলেও জানা গিয়েছে। কতজন যাত্রী ছিলেন তা জানা না গেলেও, প্রায় ২০-২৫ জনকে ডুবতে দেখা গিয়েছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। দুর্ঘটনার পর যদিও বেশ কয়েকজন সাঁতরে পারে উঠে আসেন। ট্রাকচালক মহম্মদ আজিজুল, জাহাজ কর্মী শানু আদব, খালাসি মিঠুন রায়, ট্রাকচালক রহিত মালটো ও খালাসি মুর তালিমকে এদিন রাতে উদ্ধার করা গিয়েছে। উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিদের মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।