বাবার মৃত্যুর ঘটনায় সিবিআই তদন্তের আর্জি মেয়ের

110

কিশনগঞ্জ: বাবার মৃত্যুর ঘটনায় এবার সিবিআই তদন্তের দাবি জানাল কিশনগঞ্জ থানার আইসি অশ্বিনী কুমারের বড় মেয়ে শাশ্বতী ওরফে ন্যান্সি। রবিবার বিকেলে বাবার শেষকৃত্য শেষে ন্যান্সি বলেন, ‘পুলিশ ও দেশের আইন ব্যাবস্থার উপর আমার বিশ্বাস নেই।’ তিনি আরও বলেন, ‘পুলিশ ইন্সপেক্টরের হত্যার নয়, আমার বাবার মৃত্যুর বিচার চাই।’ দেশের আনই ব্যবস্থা ইস্যুতে প্রশ্ন তুলে ধরার পাশাপাশি তাঁর প্রশ্ন, কেন তাঁর বাবাকে পশ্চিমবঙ্গে পাঠানো হল। সেক্ষেত্রে কিশনগঞ্জ পুলিশের পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গ পুলিশকেও দায়ী করেন।

এদিন প্রয়াত আইসি অশ্বিনী কুমারের বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন পূর্ণিয়া জোনের আইজি সুরেশ কুমার চৌধুরী, কিশনগঞ্জের পুলিশ সুপার কুমার আশীষ এবং পূর্ণিয়া জোনের চারটি পুলিশ জেলার পদস্থ কর্তারা। কেউই ন্যান্সির মন্তব্যের প্রত্যুত্যর করেননি। এদিকে ন্যান্সি দাবি করেন, ওই ঘটনার পালিয়ে যাওয়া কিশনগঞ্জের সিআই মনীষ কুমার সহ বাকি পলাতক পুলিশ কর্মীদের চরম শাস্তি দিতে হবে। শুধু শাস্তি নয় ঘটনার দিন পলাতক সকলকে চাকরি থেকে বরখাস্তের দাবি তুলে ভরেন তিনি। একইসঙ্গে তাঁর বাবার মৃত্যুর ঘটনায় জড়িত সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি।

- Advertisement -

অন্যদিকে, গনপিটুনির জেরে খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পাঁঞ্জিপাড়া পুলিশ। এছাড়াও পান্তাপাড়া গ্রামে ঘটনাস্থলে পুলিশ শিবির করে রয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসলামপুরের পুলিশ সুপার শচীন মককর। একইসঙ্গে বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে জারি রয়েছে চিরুনি তল্লাশি। যদিও সূত্রের খবর, ঘটনার দিন পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ কেন সময় মতোন ঘটনাস্থলে পৌঁছোয়নি সেবিষয়ে প্রশ্ন তুলে ধরেছেন কিশনগঞ্জ পুলিশের একাংশ। অন্যদিকে এই ইস্যুতে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে কিশনগঞ্জ পুলিশ থেকে শুরু করে আমজনতার মধ্য়ে।