হাতির তাণ্ডবে আলু খেতের ক্ষতি

348

শুভজিৎ দত্ত, নাগরাকাটা: ছয় বিঘা জমির আলু খেত তছনছ করল একপাল হাতি। বুধবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটে সুলকাপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত খয়েরবাড়িতে। মাথায় হাত পড়েছে আলতাব আলি নামে এক প্রান্তিক চাষির।

পাশের গরুমারা জঙ্গল থেকে বেরিয়ে এসে ফি রাতেই হাতির পাল হামলা চালাচ্ছে কৃষি অধ্যুষিত গ্রামটিতে। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক বলেন, ‘এর আগে ধান চাষেও প্রচুর ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছি। তখনও বেশিরভাগ ফসলই হাতির হানায় নয়তো রোগ পোকা লেগে নষ্ট হয়ে যায়। এবার দেড় লক্ষ টাকা ঋণ নিয়ে আলু চাষে নেমেছিলাম। সেটাও থাকল না। কিভাবে ঘুরে দাঁড়াব জানা নেই।’

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, খয়েরবাড়ি এলাকার ভক্তাধূড়া, ডাঙ্গাপাড়া, যমুনাবুড়ি মোড়, মধ্য খয়েরবাড়ি, হাজি পাড়ার মতো বিস্তীর্ণ এলাকায় সন্ধ্যা নামলেই হাতির পালের দাপাদাপি শুরু হচ্ছে। ধানের পর হাতির নজর পড়েছে আলুর ওপর। চাষিরা জানাচ্ছেন, আলু প্রায় পরিণত হয়ে উঠেছে। আর দিন কয়েকের মধ্যেই তুলে ফেলার কাজ শুরু হবে। এমন পরিস্থিতিতে বিঘার পর বিঘা জমিতে ৫০ থেকে ৬০টি হাতির পাল চষে বেড়াচ্ছে। মকলেশার রহমান নামে ভক্তাধূড়ার এক চাষি বলেন, ‘সাবাড়ের দরকার নেই। একপাল হাতি ছড়িয়ে ছিটিয়ে শুধু জমির ওপর দিয়ে হেঁটে গেলেই সর্বনাশ। অত্যন্ত করুণ পরিস্থিতি।’ বনদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক ক্ষতিপূরণের জন্য আবেদন করলে নিয়মমাফিক পদক্ষেপ করা হবে। বন্যপ্রাণ শাখার খুনিয়া স্কোয়াডের রেঞ্জার রাজকুমার লায়েক বলেন, ‘হাতির গতিবিধি নিয়ন্ত্রণে বনকর্মীদের প্রচেষ্টায় কোনও খামতি নেই।’