জঙ্গল থেকে লোকালয়ে বেরিয়ে তাণ্ডব হাতির, ক্ষতিগ্রস্ত ২টি বাড়ি

188

মৌলানি: গরুমারা জঙ্গল থেকে লোকালয়ে বেরিয়ে তাণ্ডব চালাল হাতি। দুটি বাড়িতে ভাঙচুর চালানোর পাশাপাশি ঘরে মজুত ধান সাবাড় করেছে হাতিটি। ঘটনাটি ঘটেছে মৌলানি গ্রাম পঞ্চায়েতের ডোববাড়ি ও ময়নাগুড়ি ব্লকের দোমহানি-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের রাখাল হাটে।

জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে হাতিটি জঙ্গল থেকে বেরিয়ে নেওড়া নদী পার করে মৌলানি গ্রাম পঞ্চায়েতের ডোববাড়ির বাসিন্দা শিমল রায়ের বাড়িতে হামলা চালায়। সেই সময় শিমলবাবুর ছেলে দয়াল রায় রাতের খাবার খেয়ে ঘরে ঘুমাতে যাচ্ছিলেন। ঘরে ঢুকতেই তিনি দেখতে পান ঘরের বাঁশের বেড়ার দেওয়াল ভেঙে একটি হাতি ঘরে মজুত কয়েক মন ধান সাবাড় করছে। পাশাপাশি হাতির তাণ্ডবে ঘরে থাকা একটি সাইকেল, আসবাবপত্রেরও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। সেই সময় কোনওরকমে সেখান থেকে পালিয়ে প্রাণে বাঁচেন বাড়ির লোকজন। তাঁদের চিৎকারে গ্রামবাসীরা সেখানে ছুটে আসেন। লোকজনের চিৎকারে হাতিটি সেখান থেকে পালিয়ে কয়েক কিলোমিটার দূরে ময়নাগুড়ি ব্লকের দোমহানি ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের বাংলারঝাড় গ্রামে হানা দেয়। সেখানে বাসিন্দা স্বর্বেশ্বর রায়ের একটি ঘরে ভাঙচুর চালায়।

- Advertisement -

খবর পেয়ে সেখানে বন দপ্তরের রামসাই মোবাইল স্কোয়াডের বনকর্মীরা গিয়ে হাতিটিকে তাড়িয়ে দেন। স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য বরেন রায় জানান, প্রতিদিনই গ্রামে হাতির হামলা হচ্ছে। তাঁরা বন দপ্তরকে আরও কঠোরভাবে নজরদারির দাবি জানিয়েছেন। স্থানীয় স্কোয়াডের রেঞ্জার শুকদেব রায় জানান, এদিন সন্ধ্যা থেকেই দাঁতালটি জঙ্গল থেকে লোকালয়ে বেরিয়ে পড়েছিল। সারারাত ধরে হাতিটিকে জঙ্গলে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করছিলেন। অবশেষে ভোরে বেলা জঙ্গলে ফিরে যায় হাতিটি।