মেটেলিতে দাঁতালের হানায় ভাঙল ঘরবাড়ি, আতঙ্ক এলাকায়

308

রহিদুল ইসলাম, চালসা: একদিকে করোনা আতঙ্ক অন্যদিকে লাগাতার হাতির হানা। দুইয়ের আতঙ্কে দিশেহারা মেটেলি ব্লকের লাটাগুড়ি বনাঞ্চল লাগোয়া বড়োদিঘি চা বাগানের বাসিন্দারা।

মঙ্গলবার ভোরে বাগানে তান্ডব চালিয়ে একটি দাঁতাল চারটি ঘর গুঁড়িয়ে দেয়। হাতিটি ঘরে মজুত যাবতীয় খাদ্যদ্রব্য সাবাড় করে দেয়। নষ্ট করে দেয় আসবাবপত্র। ঘর থেকে পালিয়ে কোনোক্রমে প্রাণে বাঁচে কয়েকটি পরিবার। মঙ্গলবার সকালে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যান এলাকার গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য মনোজ মাহালি, পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য ইউলিয়াম টিরু প্রমুখ।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: করোনা: ২৪ ঘণ্টায় দেশে সর্বাধিক মৃত্যু

ভোর প্রায় ৪টে নাগাদ লাটাগুড়ি বনাঞ্চল থেকে একটি দাঁতাল বড়োদিঘি চা বাগানের পাহাড়িয়া লাইনে হানা দেয়। বাগানের অভিনাশ তেলিতামারিয়া, মাংরা তেলিতামারিয়া, সোমা তেলিতামারিয়া ও আকাশ নায়েকের শোবার ঘর গুঁড়িয়ে দেয়। সাবাড় করে দেয় যাবতীয় খাদ্যদ্রব্য। পরিবারকে নিয়ে পালিয়ে কোনোক্রমে প্রাণে বাঁচেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: ভুট্টার লোভে তারের বেড়া ছিঁড়ল হাতি

তাঁরা জানান, লকডাউনে এমনিতেই সমস্যায় আছেন। এর মধ্যে যা খাবার মজুত ছিল, হাতি সাবাড় করে দিয়েছে। শোওয়ার ঘরও ভেঙেছে। অসহায় হয়ে পড়েছেন বলে জানান তাঁরা। খাবার সহ ঘর তৈরির দাবি জানিয়েছেন তাঁরা। এলাকার গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য মনোজ মাহালি বলেন, গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য জিআর ও প্লাস্টিকের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এলাকার পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য ইউলিয়াম টিরু হলেন, সরকারি নিয়মে তাঁদের ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করা হবে।