দলছুট হাতির তাণ্ডবে হুলস্থুল শহরে

86

কলকাতা: শালবনী থানার ভাদুতলার জঙ্গলে কার্যত দাবানল ছুটছে। আর সেই আগুনেই বাধা পেয়ে একটি দাঁতাল ঢুকে পড়ে মেদিনীপুর শহরে। রীতিমতো শহরজুড়ে দাপিয়ে বেড়ায় হাতিটি। পরিস্থিতি সামাল দিতে বন দপ্তর এবং হুলা পার্টি সহ রাস্তায় নামে বিশাল পুলিশ বাহিনী ও র‍্যাফ। বন দপ্তরের প্রাথমিক অনুমান, খড়গপুর গ্রামীণ এলাকার মাদপুরের দিক থেকে দলছুট হাতিটি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা নাগাদ মেদিনীপুর হয়ে শালবনী থানার ভাদুতলার জঙ্গলে প্রবেশ করতে চেয়েছিল। কিন্তু জঙ্গলে ভয়াবহ আগুনের কারণে সেটি পিছু হটে মেদিনীপুর শহরে ঢুকে পড়ে।

এদিকে, শহরের রাস্তায় হাতির হানায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে। হাতির দেখে এদিক-ওদিক ছুটোছুটি শুরু করে দেন মানুষজন। এদিকে, মানুষের চিৎকারে দিশেহারা হয়ে ছুটতে থাকে হাতিটিও। অবশেষে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাস্তায় নামেন পশ্চিম মেদিনীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অম্লান কুসুম ঘোষ। নামে র‍্যাফ। মাইক হাতে জনতাকে হাতির কাছ থেকে সরে যাওয়ার বার্তা দেন। অন্যদিকে, হাতিকে কাবু করতে রীতিমতো হিমশিম খান বনকর্মীরা।

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, রাতে হাতিটি মেদিনীপুর কলেজ, মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে দাপিয়ে বেড়ায়। পরে পরিত্যক্ত একটি বাগানে গিয়ে গা ঢাকা দেয়। অবশেষে ঘুমপাড়ানি ওষুধ (ট্রাঙ্কুলাইজার) প্রয়োগ করে ধীরে ধীরে হাতিটিকে কাবু করা হয়। ভোর নাগাদ হাতিটিকে গভীর জঙ্গলে ছেড়ে আসে বন দপ্তর।

শালবনীর ভাদুতলার জঙ্গলে দাউ দাউ করে জ্বলছে অমূল্য গাছ। ৬০ নম্বর জাতীয় সড়ক বরাবর আগুন ছুটছে গোদাপিয়াশাল জঙ্গলের দিকে। কোটি কোটি টাকার গাছ পুড়ে যাওয়ার পথে। উত্তুরে হওয়ার দাপটে সেই আগুন বেড়েই চলেছে। কিছুতেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হচ্ছে না বলে খবর।