দম্পতিকে বাড়ির কাছে আছড়ে মারল হাতি, ঘরে তিন শিশুসন্তান

582

রামশাই (ময়নাগুড়ি) : কালীপূজার  দেখে ফেরার সময়ে হাতির সামনে পড়ে প্রাণ গেল দম্পতির। ময়নাগুড়ি ব্লকের  গরুমারা জঙ্গল লাগোয়া রামশাই এলাকার যাদবপুর চা বাগান এলাকায় এই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে। অন্যদিকে বাড়ি ফেরার পথে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে রামশাই এলাকার কালামাটিতে। রামশাই এলাকার যাদবপুর চা বাগানের ডিপো লাইনের বাসিন্দা পেশায় চা বাগান শ্রমিক গাওনা ওরাওঁ ও তার স্ত্রী কুমারী ওরাওঁ রাতে অনুষ্ঠান দেখে বাগানের পথ দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। বাড়ির কিছুটা দূরেই চায় বাগানের মাঝে রাস্তায় তাঁরা হাতির সামনে পরে যান। শুঁড়ে তুলে তাঁদের আছাড় মারে হাতি।  ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান ওই দম্পতি। যেই এলাকায় ওই দম্পতির মৃত্যু হয়েছে তার কিছুদূরেই রয়েছে গরুমারা বন্যপ্রাণী  বিভাগের রামশাই মোবাইল স্কোয়াডের অফিস। কীভাবে বনদপ্তরের কার্যালয়ের কাছে হাতির হানায় দু-জনের মৃত্যু হল, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এদিন ভোরে  বাগানে কাজে বেরিয়ে স্থানীয়রা ওই দম্পতির নিথর দেহ পরে থাকতে দেখেন। বাগানের শ্রমিকরা জানিয়েছেন, ছোট তিনটি শিশুসন্তান  রয়েছে ওই দম্পতির। কারও বয়স চার, কারও ছয়, কারও আট।

অন্যদিকে গতকাল রাত সাড়ে দশ টা নাগাদ কালামাটি এলাকায় বাড়ি ফেরার পথে আরও একজন হাতির হানায় প্রাণ হারায়। সাইকেল নিয়ে ঘরে ফিরছিলেন ওই ব্যক্তি।

- Advertisement -

এদিন ঘটনার পর দীর্ঘ সময়ে পেরিয়ে  গেলেও বনকর্মীদের দেখা না পেয়ে এলাকাবাসী ক্ষোভ উগরে দেন। স্থানীয়দের কথায় বনদপ্তরের গাফিলতির  জন্যই এই ঘটনা৷ ময়নাগুড়ি থানার পুলিশ ও বনকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌছেছে।

ছবি- ওরাওঁ দম্পতির তিন সন্তান।

তথ্য ও ছবি- অর্ঘ্য বিশ্বাস