জরুরি অবস্থা জারির সিদ্ধান্ত ভুল ছিল, মন্তব্য রাহুলের

98
ছবিটি সংগৃহীত

নয়াদিল্লি: ১৯৭৫ সালে দেশে জরুরি অবস্থা জারির সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। ঠাকুমা ইন্দিরা গান্ধির এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করতে শোনা গেল প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধির মুখে। যদিও প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধিও তেমনটাই মানতেন বলে জানান রাহুল। পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা ভোটের মুখে অর্থনীতিবিদ কৌশিক বসুর সঙ্গে এক সাক্ষাত্‍কারে একথা স্বীকার করেছেন রাহুল। তিনি বলেন, ‘নিজের প্রধানমন্ত্রিত্বকালে নেওয়া এই সিদ্ধান্ত নিয়ে আফসোস করতেন ঠাকুমাও।’ একইসঙ্গে তিনি দাবি করেন, ‘সেই আমলে কোনওদিনই দেশের মৌলিক কাঠামো পালটানোর চেষ্টা করেনি কংগ্রেস সরকার।’

পাশাপাশি, বর্তমান সরকারকে আক্রমণ করে রাহুল বলেন, ‘জরুরি অবস্থা ঘোষণা না হলেও এই সরকারের আমলে যা চলছে তাতে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ। জরুরি অবস্থা সত্ত্বেও কংগ্রেস দেশের প্রতিষ্ঠানগুলির দখল নেওয়ার চেষ্টা করেনি। কিন্তু, এখন সেটাই হচ্ছে।’

- Advertisement -

১৯৭৫ সাল থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত ২১ মাসের জন্য ভারতে জারি ছিল জরুরি অবস্থা। সেই সময় কেন্দ্রে ক্ষমতায় ছিল ইন্দিরা গান্ধির নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকার। জরুরি অবস্থা জারির জন্য এখনও সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয় কংগ্রেসকে। গত বছর জরুরি অবস্থা নিয়ে কংগ্রেসকে আক্রমণ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা। বলেন, ‘৪৫ বছর আগে আজকের দিনে একটি পরিবারের ক্ষমতার প্রতি লালসার ফলে দেশে জরুরি অবস্থা জারি হয়েছিল। এক রাতেই গোটা দেশ জেলে পরিণত হয়েছিল। সাধারণ মানুষের মতামত থেকে শুরু করে সংবাদমাধ্যম, এমনকি আদালতেরও টুঁটি চিপে ধরে সরকার।’

অমিত শা’র সেই কটাক্ষের জবাবে রাহুল বলেন, ‘১৯৭৫ সালের জরুরি অবস্থা ও বর্তমান পরিস্থিতির মধ্যে কিছু মূলগত পার্থক্য রয়েছে।’ তাঁর দাবি, ‘রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ দেশের মৌলিক গঠনকেই পালটে দিচ্ছে। কংগ্রেস কখনওই প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোকে আঘাত করেনি।’