মুম্বইয়ে ১৪ দিনের কোয়ারান্টিন বিরাটদের!

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : ছিল ৮ দিন। বেড়ে হয়ে গেল ১৪ দিন!

২ জুন বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপ ফাইনাল ও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে বিলেত রওনা হওয়ার আগে করোনা নিয়ে কোনওরকম সমঝোতায় নারাজ ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। স্থগিত হয়ে যাওয়া চতুর্দশ আইপিএলের তিক্ত অভিজ্ঞতার পর সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়রা ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্য নিয়ে কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চাইছেন না। তাই নিয়মিত বদলে যাওয়া দেশের করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বিরাট কোহলিদের মিশন ইংল্যান্ড নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্ত বদলে ফেলল বোর্ড।

- Advertisement -

বিসিসিআইয়ের তরফে ভারতীয় দলের জন্য নয়া নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, আগামী ১৯ মে মুম্বইয়ে পুরো দলকে একত্রিত হতে হবে। তার আগে ব্যক্তিগত উদ্যোগে করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ রিপোর্ট নিয়ে হাজির হতে হবে মুম্বইয়ে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভারতীয় ক্রিকেটারদের বাণিজ্যনগরীতে পৌঁছানোর জন্য বিশেষ চাটার্ড বিমানের ব্যবস্থা করার কথাও ভাবছে বিসিসিআই। মুম্বইয়ে এক পাঁচতারা হোটেলে কোহলি-রোহিতদের ১৪ দিনের কঠোর কোয়ারান্টিন পর্ব শুরু হবে। সেই কোয়ারান্টিনের মধ্যেও ভারতীয় ক্রিকেটারদের অন্তত তিন বার করোনা পরীক্ষা করা হবে। প্রতিবার পরীক্ষার ফল নেগেটিভ হওয়া বাধ্যতামূলক বলে জানিয়েছে বোর্ড। যদি কোনও ক্রিকেটার পজিটিভ হন, তাহলে তাঁর পক্ষে ইংল্যান্ড সফরে যাওয়া সম্ভব হবে না।

বিসিসিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, ইংল্যান্ড সফরের জন্য নির্বাচিত হওয়া ২০ সদস্যের ভারতীয় দলের সবাইকে কোয়ারান্টিনের বদলে যাওয়া নিয়মের কথা জানানো হয়েছে। আইপিএলে ক্রিকেটারদের সংক্রামিত হওয়ার পর ইংল্যান্ড সফরে যেন এমন ঘটনা না ঘটে, তা নিয়ে একটু বেশিই সক্রিয় বিসিসিআই। এই সক্রিয়তার অঙ্গ হিসেবে কোহলি-রাহানে-ইশান্ত-ঋষভরা ইতিমধ্যেই করোনা টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন। সূত্রের খবর, ইংল্যান্ড সফরের দলে থাকা বাকি ক্রিকেটাররাও খুব দ্রুত প্রথম ডোজের টিকা নিয়ে নেবেন। বোর্ডের তরফে চেষ্টা চলছে, ক্রিকেটারদের দ্বিতীয় ডোজের টিকা বিলেতে দেওয়ানোর ব্যবস্থা করার। কিন্তু এব্যাপারে রাত পর্যন্ত কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।