চেন্নাইয়ে দ্বিতীয় কোভিড টেস্টে পাস রুটরা

চেন্নাই: নিউ নর্মালে নতুন শুরু। কোভিড-পরিস্থিতিতে ভারতের মাটিতে বসতে চলেছে প্রথম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের আসর। ৬ দিনের কোয়ারান্টিন পর্ব, তিন-তিনটি কোভিড পরীক্ষার হার্ডল পেরিয়ে শনিবার যে লক্ষ্যে মাঠে নেমে পড়লেন বেন স্টোকস, জোফ্রা আর্চার, রোরি বার্নস। অস্ট্রেলিয়ায় ভারতীয় দলকে ১৪ দিন কোয়ারান্টিনে কাটাতে হয়েছিল। সেখানে ভারতে ছয় দিনেই মুক্তির স্বাদ। চিপক স্টেডিয়ামে প্রথম নেট সেশনে যে স্বাদটা চেটেপুটে নিলেন ইংরেজ ত্রয়ী।

শ্রীলঙ্কা সফরে ছুটিতে ছিলেন স্টোকস-আর্চাররা। অপরদিকে, বার্নস প্রথম সন্তানের জন্মের জন্য পিতৃত্বকালীন ছুটিতে ছিলেন। তিনজনই আগে ভারতে চলে এসেছিলেন। ফলে তিনদিন আগে অনুশীলনের ছাড়পত্র। জো রুট সহ বাকিরা অবশ্য এখনও হোটেলবন্দি। তবে স্বস্তির খবর, দলের প্রত্যেকেই দ্বিতীয় কোভিড-১৯ টেস্টে উতরে গিয়েছেন। ইংল্যান্ড দলের মিডিয়া ম্যানেজার ড্যানি রুবেন জানিয়েছেন, শুক্রবার দ্বিতীয় পিসিআর কোভিড-১৯ টেস্ট হয়েছিল। সবার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

- Advertisement -

এদিকে, নির্ভতবাসেই চলছে সিরিজের ছক তৈরি। থ্রি লাযন্সের যে স্ট্র্যাটেজিতে স্বভাবতই বাড়তি গুরুত্ব পাচ্ছে বিরাট কোহলি। থিংকট্যাংকের অন্যতম ব্যাটিং কোচ গ্রাহাম থর্পের মতে, বিরাট দুর্দান্ত ক্রিকেটার। বছরের পর তা প্রমাণ করছে। ঘরের মাঠকে খুব ভালোভাবে চেনে। আমাদের লক্ষ্য থাকবে সেরা বলটা বিরাটকে করা। একইসঙ্গে স্কোরবোর্ডে বড়ো রান তুলে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের চাপে ফেলা।

জোস বাটলার অপরদিকে সতীর্থ আর্চার-স্টোকসকে এক্স ফ্যাক্টর ধরছেন। থ্রি লায়ন্সের গুরুত্বপূর্ণ সদস্যের মতে, জোফ্রা নিঃসন্দেহে এক্স ফ্যাক্টর। এই বিগ সিরিজের জন্য ও নিজেও মুখিয়ে রয়েছে। দলে এমন কয়েকজন রয়েছে, যারা বল হাতে অবিশ্বাস্য কাণ্ড ঘটাতে সক্ষম। অ্যান্ডারসন-ব্রড ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা। এক্স ফ্যাক্টরের তালিকায় স্টোকসকেও রাখব।