ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষক চেয়ে আর্জি শহরের দুই স্কুলের

256

নিতাই সাহা, শিলিগুড়ি: প্রয়োজন ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষক। আর তাই ছয় শিক্ষক চেয়ে জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের দপ্তরের তরফে চিঠি দিল শিলিগুড়ির দুটি বাংলা মাধ্যম স্কুল। একইসঙ্গে জানানো হয়েছে, ওই ছয় শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে নতুন করে শূন্য পদ তৈরি করতে হবে। দুই স্কুলের পক্ষে এহেন আর্জি হাতে পেয়েই নড়েচড়ে বসে শিক্ষা দপ্তর। জানা গিয়েছে, স্কুলের তরফে চিঠি হাতে পেতেই তা দপ্তরের পদস্থ আধিকারিকদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের সবুজ সংকেতের মিলতেই প্রায় বছর তিনেক আগে বাংলা মাধ্যমের পৃথক দুটি স্কুলে শুরু হয় ইংরেজি মাধ্যমের পঠন-পাঠন। সেই তালিকায় রয়েছে শিলিগুড়ি বয়েজ হাই স্কুল এবং শিলিগুড়ি গার্লস হাই স্কুল। পঞ্চম শ্রেণি দিয়ে পঠন-পাঠন শুরু হলেও চলতি শিক্ষাবর্ষে অষ্টম শ্রেণিতে উন্নিত হয়েছে ইংরেজি মাধ্যমের পঠনপাঠন। স্কুল সূত্রে খবর, শ্রেণির সংখ্যার পাশাপাশি বাড়ছে পড়ুয়াদের সংখ্যা। এমতবস্থায় ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষক নিয়োগ না হওয়ায় বিপাকে দুটি স্কুলেরই কর্তৃপক্ষ। সেক্ষেত্রে এবার শূন্য পদ তৈরি করে ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষক নিয়োগের দাবি জানিয়েছেন তারা।

- Advertisement -

জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক দপ্তর সূত্রে খবর,  সমস্যা সমাধানে শুরুতেই আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে তৈরি হয়েছিল ইংরেজি মাধ্যমে পড়াশোনা করে আসা শিক্ষকদের নামের তালিকা। তা উচ্চ পর্যায়ে পাঠানোও হয়। যদিও সমাধান সূত্র অধরা। এরপরেই ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে নয়া শূন্য পদ তৈরির আর্জি জমা পড়ে।

শিলিগুড়ি গার্লস হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা অত্যুয়া বাগচী বলেন, ‘পড়াশোনায় সমস্যা হচ্ছে। বাংলা মাধ্যমের শিক্ষিকারাই ইংরেজি মাধ্যমের পড়ুয়াদের পড়াচ্ছেন। তবে এক্ষেত্রে প্রয়োজন ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষক। আর তাই নতুন করে ছয় শিক্ষক নিয়োগের আর্জি জানিয়ে শূন্য পদ তৈরি আবেদন জানানো হয়েছে।’ শিলিগুড়ি বয়েজ হাই স্কুলের শিক্ষক উৎপল দত্ত বলেন, ‘সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক দপ্তরে চিঠি পাঠানো হয়েছে। দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে বলেই মনে করছি।’ জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক(শিলিগুড়ি) রাজীব প্রামাণিক বলেন, ‘সমস্ত বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ইতিমধ্যে দুই স্কুলের তরফে পাওয়া আবেদন উচ্চপর্যায়ে পাঠানো হয়েছে। আমরাও আশা রাখছি দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে।’