গরুমারাকে ‘ইকো সেনসেটিভ জোন’ ঘোষণার দাবি পরিবেশপ্রেমীদের

100

রহিদুল ইসলাম, চালসা: গরুমারার বন ও বন্যপ্রাণীদের রক্ষার জন্য দ্রুত গরুমারা জাতীয় উদ্যানকে ইকো সেনসেটিভ জোন হিসেবে ঘোষণা করার দাবি উঠেছে। গরুমারার বন্যপ্রাণীদের পানীয় জলের অন্যতম উৎস হল মূর্তি নদী। এই মরসুমে মূর্তি নদীতে জল অনেকটাই কম থাকে। তা সত্ত্বেও দেখা যাচ্ছে কিছু অসাধু মৎসশিকারিরা মূর্তি নদীতে অবৈধভাবে পাথরের বাঁধ তৈরি করে মাছ শিকার করছে। নদীতে বাঁধ দেওয়ার ফলে নদীর ডাউন স্ট্রিমে নদীর জল যেতে পারছে না। তাই মূর্তি নদীর জল ঠিকঠাকভাবে গরুমারা জাতীয় উদ্যানে পৌঁছোতে পারছে না। ফলে সমস্যায় পড়তে পারে গরুমারার বন্যপ্রাণীরা। গরুমারার বন্যপ্রাণীদের রক্ষার স্বার্থে এই জাতীয় উদ্যানকে ‘ইকো সেনসেটিভ জোন’ হিসেবে ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন পরিবেশ প্রেমীরা।

পরিবেশপ্রেমী সংস্থা স্পোরের সম্পাদক শ্যামাপ্রসাদ পাণ্ডে বলেন, ‘গরুমারাকে ইকো সেনসেটিভ জোন হিসেবে ঘোষণা করা হলে এই ধরণের যাবতীয় সমস্যার সমাধান হবে। এছাড়াও যারা অবৈধভাবে নদীর গতিপথ রোধ করে বাঁধ দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে বনদপ্তর সহ সেচ বিভাগ ও পুলিশ প্রশাসনকে মিলিতভাবে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। আমরা লিখিতভাবে প্রশাসনকে যাবতীয় দাবির কথা জানাব।‘

- Advertisement -

উল্লেখ্য, এর আগেও মূর্তি নদীতে বিষ প্রয়োগ করে মাছ শিকারের অভিযোগ উঠেছিল। তারপরেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এদিকে, বনদপ্তর সূত্রে খবর, অবৈধ বাঁধ ভেঙে দেওয়া হবে। যাবতীয় বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।