নদীতে ইনভার্টার দিয়ে মাছ ধরার বিরোধিতায় পরিবেশপ্রেমীরা

149

চালসা: অবৈধভাবে কিছু অসাধু মৎস্যচাষি বিভিন্ন নদীতে ইনভার্টার ও ব্যাটারির সাহায্যে মাছ শিকার করছে। এর ফলে নদীয়ালি মাছ ধ্বংস হবার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পরিবেশ প্রেমীরা। এভাবে মাছ শিকার বন্ধের বিষয়ে প্রশাসন কোনও ব্যবস্থাই নিচ্ছে না বলে পরিবেশ প্রেমীদের অভিযোগ। ওই সমস্ত অসাধু মৎস্যচাষিদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন পরিবেশ প্রেমীরা। ডুয়ার্সের মূর্তি, কুর্তি, নেওরা, মাল সহ বিভিন্ন নদীতে কিছু অসাধু মৎস্যচাষি দিনের আলোতেই ব্যাটারি ও ইনভার্টারের সাহায্যে মাছ শিকার করছে। নেই প্রশাসনের নজরদারি। এর আগেও বিভিন্ন নদীতে বিষ প্রয়োগ করে মাছ শিকার করার খবরও সংবাদ মাধ্যমে ওঠে বহুবার। ঘটনার কয়েকদিন প্রশাসনের কঠোর নজরদারি থাকলেও কিছুদিন পর আবার সক্রিয় হয়ে ওঠে ওই সমস্ত অসাধু মৎস্য চাষিরা। এই সময়ে নদী গুলোতে জল কম থাকে। তাই ওই ভাবে নদীতে মাছ শিকার করছে কিছু অসাধু মৎস্য চাষি।

চালসার পরিবেশ প্রেমী মানবেন্দ্রদে সরকার বলেন, ‘মূর্তি, কুর্তি সহ বিভিন্ন নদীতে দেখা যাচ্ছে কিছু অসাধু মৎস্যচাষি ব্যাটারি ও ইনভার্টারের সাহায্যে অবৈধভাবে মাছ শিকার করছে। এভাবে মাছ শিকার করলে একসময় নদীয়ালি মাছ শেষ হয়ে যাবে। মাছের বংশবিস্তার হবে না। প্রশাসন যেখানে কোটি কোটি টাকা খরচ করে নদীয়ালি মাছ বৃদ্ধি করার চেষ্টা করছে সেই জায়গায় এভাবে মাছ শিকার করে তাদের বংশবিস্তার রোধ করা হচ্ছে। যে সমস্ত অসাধু মৎস্যচাষি এভাবে মাছ শিকার করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তিনি। জলপাইগুড়ি জেলা পরিসদের মৎস্য কর্মাধ্যক্ষ সীমা সরকার বলেন, ‘বিষয়টি উদ্বেগজনক। বিভিন্ন সময়ে আমরা মৎস্যচাষিদের ওই ভাবে মাছ শিকার না করার বিষয়ে সচেতন করি। তার পরেও কিছু মৎস্যচাষি ওই ভাবে মাছ শিকার করছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

- Advertisement -