উদ্বোধনের এক বছর পরও স্টল বন্টন হয়নি, ক্ষোভ ব্যবসায়ীদের

112

ফালাকাটা: পরিষেবার নিরিখে রাজ্যের মধ্যে সেরা স্থানে থাকা ফালাকাটা কৃষক বাজারে উদ্বোধনের এক বছর পরও ১০০টি স্টল বন্টন করা হয়নি। এই কৃষক বাজার যখন তৈরি হয় তখন স্থানীয় কাঁচামাল ও সবজি ব্যবসায়ীদের জন্য ২২টি স্টল চালু হয়। এরপর আরও ১০০টি স্টল তৈরির উদ্যোগ নেয় কৃষি বিপণন দপ্তর। দু’বছর আগেই স্টলগুলি তৈরির কাজ প্রায় সম্পন্ন হয়। গত বছর ৯ সেপ্টেম্বর স্টলের উদ্বোধন করে জেলা প্রশাসন। কিন্তু এখনও ওইসব স্টল বন্টন না হওয়ায় প্রশাসনের ভূমিকায় প্রশ্ন উঠেছে। এই নিয়ে ব্যবসায়ী মহলে ক্ষোভ ছড়িয়েছে। ক্ষুব্ধ কৃষক সংগঠনের নেতারাও। তবে কয়েক মাস বিধানসভা নির্বাচন ও কোভিড পরিস্থিতিতে কিছুটা দেরি হলেও এখন পুরো প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন হওয়ায় শীঘ্রই স্টল বন্টন করা হবে বলে আরএমসির আধিকারিকরা জানিয়েছেন।

আরএমসির আলিপুরদুয়ার জেলা আধিকারিক সুব্রতকুমার দে জানান, স্টল বন্টনের প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। এখন বৈদ্যুতিকরণের কিছু কাজ বাকি রয়েছে। ওখানে একটি বিদ্যুতের ট্রান্সফর্মার বসানো হবে। এসব হয়ে গেলে তাড়াতাড়ি স্টল বন্টন করা হবে। তাছাড়া কয়েক মাস ভোটের জন্য এবং কোভিড প্রোটোকলের জন্য এই স্টল বন্টন প্রক্রিয়া কিছুটা দেরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -

২০১৫ সালের ১ এপ্রিল থেকে ২২টি স্টল নিয়ে ফালাকাটা কৃষক বাজার চালু হয়। ফালাকাটা ব্লকের কৃষি অর্থনীতি অনেকটাই চাঙ্গা। তাই জেলার কৃষকরা এই কৃষক বাজারের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েন। পাশাপাশি রেল ও সড়ক পথে ভালো যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে পাশের কোচবিহার ও জলপাইগুড়ি জেলার কৃষকরাও উৎপাদিত ফসল এই বাজারে বিক্রির জন্য নিয়ে আসেন। দেশ-বিদেশের পাইকাররাও এখানে নিয়মিত আসেন। এই কয়েক বছরে কৃষক বাজারের কারণে ফালাকাটার অর্থনীতিই অনেকটা বদলে গিয়েছে। তাই চাহিদা থাকায় পরে আরএমসির ৪ কোটি ১০ লক্ষ ৬৮ হাজার টাকায় বাড়তি ১০০ স্টল তৈরি হয়। কিন্তু নীল-সাদা রংয়ের ঝা চকচকে ১০০টি স্টল তৈরির পর তালাবন্ধ রয়েছে। কেন স্টলগুলি বন্টন করা হচ্ছে না তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এলাকাবাসী। ফালাকাটা কৃষক বাজার কাঁচামাল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হীরম্ভকুমার সাহা জানান, স্টল বন্টন নিয়ে বেশ কয়েকবার প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। তারপরও বন্টন করা হচ্ছে না। এজন্য বর্ষায় ব্যবসায়ীদের দারুণ সমস্যা হচ্ছে। আর স্টল চালু হলে পাইকারি বাজারের আরও উন্নত হবে।

এই স্টল নিয়ে কিষাণ ও খেতমজদুর তৃণমূলের নেতারাও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সংগঠনের ফালাকাটা ব্লক সভাপতি সুনীল রায় জানান, আরএমসির স্টল বন্টন প্রক্রিয়া নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। এজন্য কৃষকদের পাশাপাশি ব্যবসায়ীরাও সমস্যায় পড়েছেন। বিজেপির কিষাণ মোর্চার ফালাকাটা ১৫ নম্বর মণ্ডল সভাপতি পরিমল সরকার জানান, দীর্ঘদিন থেকে স্টলগুলি তালাবন্ধ রয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব এগুলি বন্টন করা প্রয়োজন। সিপিএমের সারা ভারত কৃষক সভার জেলা সদস্য ক্ষিতীশচন্দ্র রায় জানান, আগের ২২টি স্টল বন্টনেও অনেক টালবাহানা হয়েছে। এবারও পুনরাবৃত্তি হচ্ছে।