তিনদিন পরেও দুর্গাপুর ব্যারেজের লকগেট সারাইয়ের কাজ শুরু হয়নি

375

দুর্গাপুর: তিনদিন পরেও পশ্চিম বর্ধমান জেলার দুর্গাপুর ব্যারেজের লক গেট মেরামতের কাজ শুরু হল না। দামোদরের জল কাজে বাধা সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ। তাই এখন বালির বস্তা ফেলে দামোদরের গতিপথ বা জলের স্রোত পরিবর্তন করার চেষ্টা করা হচ্ছে। যদিও এদিন সন্ধ্যা পর্যন্ত পরিকল্পনা সফল হয়নি। তবে, কিছুটা হলেও জলশুন্য হয়েছে দুর্গাপুর ব্যারেজ। বলা চলে বরিবারের ছবিই সোমবার বিকালেরও পরেও দেখা গিয়েছে।

এদিকে ব্যারেজে জল না থাকায় রবিবার রাতের পর থেকে দুর্গাপুর পুরনিগম এলাকা সহ বিভিন্ন এলাকায় জলের সংকট দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় সোমবার দুর্গাপুরে প্রশাসনিক স্তরে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেন পশ্চিম বর্ধমানের জেলাশাসক পূর্ণেন্দু কুমার মাজি। জেলাশাসক ছাড়াও সেই বৈঠকে ছিলেন দুর্গাপুর পুরনিগমের মেয়র দিলীপ অগস্থি, ডিভিসি, আড্ডা বা আসানসোল দুর্গাপুর উন্নয়ন পর্ষদ পিএইচই বা রাজ্য জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তর সহ অন্যসব বিভাগ ও দপ্তরের আধিকারিকরা।

- Advertisement -

জল সংকট সামাল দিতে ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসনের তরফে পানীয়জলের প্যাকেট এলাকায় এলাকায় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি আসানসোল পুরনিগম ও কাঁকসা ব্লক থেকে জলের ট্যাঙ্কার দুর্গাপুরের নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসন ও সেচ দপ্তরের আশা, সোমবার রাতের মধ্যে জল আসা একবারে বন্ধ হয়ে যাবে। তারপরই লক গেট মেরামতের কাজ পুরোদস্তুর শুরু হবে। জেলাশাসক পূর্ণেন্দু কুমার মাজি জানিয়েছেন, সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কাজ শুরু হলে, ১৮ থেকে ২০ ঘন্টার মধ্যে তা শেষ করা হবে। আর এই সময়ে কোথাও যাতে জল সংকট না হয়, তারজন্য সব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।