কলকাতা, ৫ অক্টোবরঃ ‌স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান উৎসব চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় মহিলাদের যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠল। দীর্ঘদিন ধরে উৎসবকে এআইবি-র হয়ে বহু ভিডিওতে দেখা গিয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে তাঁদের অভিজ্ঞতা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন একাধিক মহিলা।

অভিযোগ, তিনি নিজের যৌনাঙ্গের ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে মহিলা-যুবতীদের পাঠাতেন। অস্ট্রেলিয়ায় একটি ক্রুজে একদল ভারতীয় পুরুষ কীভাবে মহিলাদের সঙ্গে আচরণ করেছেন সেই বিষয়ের একটি টুইটেই উঠে এসেছে উত্‍সবের বিষয়টি। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। বৃহস্পতিবার উৎসব টুইট করে বলেন, ‘‌ধৈর্য্যর সঙ্গে গোটা বিষয়টি পরিচালনা করতে হবে। সমস্ত অ্যাকাউন্ট থেকেই আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠছে। এখানে কোনও অজুহাত নেই। আমি জানি অবিবেচকের মতো শোনাচ্ছে। যখন থেকে এই পুরো জিনিসটা শুরু হল, আমি নিজেকেই শিকার হিসাবে দেখছি।’‌

তবে শুক্রবারই তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর এই আচরণের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। বৃহস্পতিবার এক মহিলা উত্‍সবের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন যে সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের যৌনাঙ্গের ছবি পাঠাতেন উৎসব। এখানেই শেষ নয়, বেশ কিছু মহিলা তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে জানান যে উৎসব তাঁদের অশালীন মেসেজ পাঠাতেন এবং মহিলাদের কাছ থেকে তাঁদের নগ্ন ছবিও চাইতেন।
এআইবি-র তরফে জানানো হয়েছে, গুরুতর অভিযোগ ওঠার পর উৎসবের সব ভিডিও ইউটিউব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। টুইট করে এআইবি বলে, ‘‌আমরা নিরাপদ কর্মস্থল ও কার্যক্ষেত্রে সহযোগী পরিবেশ বজায় রাখতে সচেতন থাকি।  কিন্তু উৎসবের মত মানুষের বিরুদ্ধে যে ধরনের অভিযোগ উঠেছে তাতে কাজের পরিবেশ বিষাক্ত, ভীতিকর এবং মহিলাদের জন্য অসুরক্ষিত হতে পারে। আমরা দুঃখিত।’‌ তারা আরও জানিয়েছে, তদন্তে পূর্ণ সহায়তা করবেন তারা। এআইবি স্পষ্ট করে জানিয়েছে, উৎসব চক্রবর্তী কখনও প্রধান লেখক হিসাবে কাজ করেননি এবং এখন আর সংগঠনের অংশ নন। গোটা বিষয়টি দেখেছে মুম্বই পুলিশ। শুক্রবার সকালে উৎসব জানিয়েছেন, তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা কোনো অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে তিনি আইনের সাহায্য নিতে প্রস্তুত।

স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান বরুণ গ্রোভার, অদিতি মিত্তল এবং বলিউড অভিনেত্রী সোনম কাপুর এআইবির এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

https://twitter.com/Wootsaw/status/1048088816030953472