লাল-হলুদে জট কাটার আশা প্রাক্তনদের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : লাল-হলুদের চুক্তিজটের গতিপ্রকৃতি কোনদিকে? উত্তরের খোঁজে কৌতহল বাড়ছে ২৬ জুলাইকে কেন্দ্র করে। ওইদিন দুপুরে ক্লাবতাঁবুতে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে প্রাক্তন ফুটবলারদের। ইতিমধ্যে সমরেশ চৌধুরি, প্রশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায় সহ একাধিক প্রাক্তনের কাছে সেই বার্তাও পৌঁছে গিয়েছে ক্লাবের তরফে। তবে টার্মশিটে কী রয়েছে, তা না দেখে আগাম মন্তব্যে নারাজ প্রাক্তনরা। পাশাপাশি ক্লাবের তরফে টার্মশিট প্রাক্তন ফুটবলারদের সমক্ষে আনা নিয়ে আইনি প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে বিভিন্ন মহলে।

শুক্রবার বিকেলে ক্লাবতাঁবুতে উপস্থিত থেকে চুক্তিপত্রের বিভিন্ন শর্ত খতিয়ে দেখেছেন ইস্টবেঙ্গলের দুই প্রাক্তন অধিনায়ক সুকুমার সমাজপতি ও চন্দন বন্দ্যোপাধ্যায়। বিনিয়োগকারীদের পাঠানো চুক্তিপত্রের বেশকিছু শর্ত আপত্তিজনক এবং তাকে মান্যতা দিলে শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাব লগ্নিকারী সংস্থার ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে পরিণত হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সুকুমার সমাজপতি। ফলত ক্লাব ও বিনিযোগকারীর চুক্তি জটিলতা যে অবস্থায় দাঁড়িয়ে তা মেটাতে গেলে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হওয়া ছাড়া সমাধান অসম্ভব বলেই মনে করেছেন তিনি। সুকুমার সমাজপতির কথায়, আমরা চুক্তিপত্র নিয়ে প্রাক্তন ফুটবলারদের সঙ্গে আলোচনা করতে চাই। তাদের মতামত নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চাই। সমাধানসূত্র একটা বেরোবে, আমি আশাবাদী।

- Advertisement -

অন্যদিকে, এটিকে মোহনবাগান ছাড়তে চলেছেন জবি জাস্টিন। নতুন মরশুমে মালয়ালি ফরোয়ার্ডের গন্তব্য চেন্নাইয়ান এফসি। দক্ষিণের আইএসএল ফ্রাঞ্চাইজির সঙ্গে চুক্তি পাকা জবির। প্রাথমিক পর্যায়ে নর্থ ইস্ট ইউনাইটেডও তাঁকে দলে পেতে আগ্রহী ছিল। শেষপর্যন্ত চেন্নাইয়ানের জালে ধরা দিতে চলেছেন জবি। ইস্টবেঙ্গল থেকে বছর দুয়েক আগে কলকাতার অন্য প্রান্তে পারি দিলেও সেভাবে খেলার সুযোগ পাননি তিনি।