চাকরি না পেলে পুরোনো পথে ফেরার হুঁশিয়ারি কেএলওদের

কোচবিহার : চাকরির দাবিতে কোচবিহারে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়ের দ্বারস্থ হলেন আত্মসমর্পণ করা কেএলও জঙ্গি ও লিংকম্যানদের একাংশ। বুধবার তাঁরা পার্থপ্রতিমবাবুর সঙ্গে দেখা করে আলোচনা করেন। তাঁরা জানান, রাজ্য সরকার তাঁদের চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু তাঁদের এখনও চাকরি হয়নি। তাঁরা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, দ্রুত সরকার প্রতিশ্রুতিমতো চাকরি না দিলে পুরোনো রাস্তায় ফিরতে বাধ্য হবেন তাঁরা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্তরবঙ্গ সফরের আগে প্রাক্তন কেএলও জঙ্গি ও লিংকম্যানদের এই হুমকি যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই রাজনৈতিক মহল মনে করছে। জেলা তৃণমূল সভাপতি বলেন, চাকরির বিষয় নিয়ে এদিন প্রাক্তন কেএলও জঙ্গি ও লিংকম্যানদের একাংশ আমার কাছে এসেছিলেন। বিষয়টি মুখ্যমন্ত্রীকে জানাব বলে তাঁদের জানিয়েছি।

কোচবিহারের আত্মসমর্পণ করা প্রাক্তন কেএলও জঙ্গি ও লিংকম্যানরা জানিয়েছেন, সরকারের আহ্বানে সাড়া দিয়ে ২০০০ সাল থেকে ২০০৫ সালের মধ্যে বহু জঙ্গি ও লিংকম্যান সরকারের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। জেল খেটে বের হওয়ার পর তাঁদের চাকরি দেওয়া হবে বলে সরকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু হয়নি। কেএলওর প্রতিষ্ঠাতা পুলস্ত বর্মন বলেন, ১৯৯৩ সালে জীবন সিংহ, আমি ও হর্ষ বর্ধন এই তিনজন কেএলও তৈরি করি। এই পর্যন্ত আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ির ৭২ জন প্রাক্তন কেএলও জঙ্গি ও লিংকম্যানের চাকরি হয়েছে। লকডাউনের আগে মালদায় এসে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন ৪০ জন প্রাক্তন কেএলও জঙ্গি ও লিংকম্যানকে চাকরি দেওয়া হবে। কিন্তু কোচবিহারে এখনও পর্যন্ত একজনেরও চাকরি হয়নি। তিনি বলেন, ২০১৮ সালে মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের কাছে কোচবিহারের ৫১ জন প্রাক্তন কেএলও জঙ্গি ও লিংকম্যানদের তালিকা তাঁরা জমা দিয়েছিলেন। এরপর আরও অনেক নাম যুক্ত হয়েছে। গত ২৯ জুন তৃণমূলের প্রাক্তন জেলা সভাপতি বিনয়কৃষ্ণ বর্মনের বাড়িতে তাঁদের একটি বৈঠক হয়। একাধিকবার সরকারের কাছে আবেদন জানিয়ে কোচবিহারে তাঁদের কারও চাকরি হচ্ছে না। তাঁরা আরও কিছুদিন দেখবেন। এর মধ্যে সরকার তাঁদের চাকরি না দিলে ফের আগের পথে ফিরে যাবেন।

- Advertisement -

প্রাক্তন কেএলও লিংকম্যান প্রাণে ঈশোর বলেন, ২০০০ সালে সরকারের আহ্বানে সাড়া দিয়ে আমি সারেন্ডার করেছিলাম। এরপর তিন বছর জেল খেটেছি। প্রশাসন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল স্থায়ী কর্মসংস্থান করবে। কিন্তু এখনও চাকরি পাইনি। অবিলম্বে চাকরি না পেলে আগামীদিনে আমরা কী করব সেটা আমাদের আবার ভাবতে হবে। প্রাক্তন কেএলও লিংকম্যান নগেন বর্মন বলেন, আমাদের ৫১ জনের চাকরি পাওয়ার কথা ছিল। আমরা জেলা তৃণমূলের সভাপতিকে সব জানিয়েছি। তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে জানাবেন বলেছেন।