চোলাইয়ের ঘাঁটিতে হানা দিতে গিয়ে আক্রান্ত আবগারি কর্মীরা

82

খড়িবাড়ি: গ্রামে গ্রামে চোলাই মদের ঘাঁটিতে হানা দিতে গিয়ে বিপাকে আবগারি দপ্তর। চোলাই মদের ভাটি ভাঙ্গায় ক্ষিপ্ত জনতার ছোড়া পাথরের আঘাতে আবগারি দপ্তরের ৩ কর্মী ঘায়েল হল। ভাঙল দুটি গাড়ির কাঁচ। আজ সকাল ৯ টা নাগাদ আবগারি দপ্তরের ১৫ থেকে কুড়ি জনের একটি দল খড়িবাড়ি থানার সোনাপিন্ডির রাই বস্তিতে হানা দেয়। এই গ্রামের পনেরো থেকে কুড়িটি বাড়িতে অবৈধভাবে চোলাই মদ তৈরি করা হয় বলে আবগারি দপ্তরের কাছে অভিযোগ ছিল।

এদিন প্রথমে এলাকার শুকদেব রাই, রিন্টু রাই, অম্বিকা রাইয়ের বাড়িতে হানা দেয় আবগারি দপ্তর। নষ্ট করে দেওয়া হয় প্রচুর চলাই মদ। ভেঙে ফেলা হয় মদ তৈরির সামগ্রী। প্রতিটি বাড়ির ভেতরে ঢুকে আবগারি দপ্তরের কর্মীরা তল্লাশি চালায়। আবগারি দপ্তরের কর্মীরা বাড়ির মহিলাদের ধমকে বাড়ির আলমারি, বিছানা, বাক্স খুলে তল্লাশি শুরু করায় ক্ষিপ্ত হয়ে পাথর ছোড়া শুরু করে এলাকার মানুষ। পাথরের আঘাতে ৩ জন আবগারি দফতরের কর্মী ঘায়েল হন। জনতার ছোড়া পাথরে দুটি গাড়ির কাঁচ ভেঙে যায়। স্থানীয় বাসিন্দা লক্ষ্মী রাই অভিযোগ করে জানান, আবগারি দফতরের কর্মীরা অন্যায় ভাবে তল্লাশি চালানোয় মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে। কিন্তু গাড়ির কাঁচ কে বা কারা ভেঙেছে তারা জানেন না।

- Advertisement -

ঘটনার পর কোনোক্রমে আবগারি দফতরের কর্মীরা খড়িবাড়ি থানায় এসে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। আহত কর্মীদের খড়িবাড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা করান হয়। এ দিনের অভিযানে আবগারি দপ্তরের সুপারেন্টেন্ড প্রবীণ থাপা, ডেপুটি কালেক্টর সুনন্দ ভট্টাচার্য ও সাব-ইন্সপেক্টর সুভাষ হালদার উপস্থিত ছিলেন। যদিও তারা কেউ ক্যামেরার সামনে মুখ খুলতে চাননি। তবে খড়িবাড়ি থানার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অভিযানের আগে স্থানীয় থানাকে জানানো হয় নি। পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে।