জমি দখল নিয়ে তুমুল উত্তেজনা মেখলিগঞ্জে

মেখলিগঞ্জ: জমি দখলকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল মেখলিগঞ্জ ব্লকের নিজতরফ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন ৪০ নিজতরফ এলাকার কিছু মানুষ ৭৫ নিজতরফ এলাকায় পড়ে থাকা জমিতে থাকার জায়গা তৈরি করতে যান। টানা বর্ষণে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় তাঁরা তাঁদের এলাকা থেকে সরে ওই এলাকায় যাবার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তাঁদের সংশ্লিষ্ট এলাকার কিছু মানুষ আশ্রয়ের জায়গা তৈরি করতে বাঁধা দিলে দুপক্ষের মধ্যে তুমুল গন্ডগোল বেঁধে যায়।

- Advertisement -

এনিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে মেখলিগঞ্জ থানার পুলিশকে নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান মেখলিগঞ্জ মহকুমা প্রশাসনের একটি প্রতিনিধি দল। তাঁরা বিষয়টি নিয়ে কথা বলার চেষ্টা করেন। তবে এলাকা এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে ময়দানে নামতে হয়। খবর পৌঁছায় নিজতরফ গ্রাম পঞ্চায়েত দপ্তরেও। তারাও ঘনঘন খোঁজখবর নিতে থাকেন।

গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান সুনীল রায় বলেন, বর্ষায় জলমগ্ন ও ক্ষতিগ্রস্থ ৪০ নিজতরফের কিছু অসহায় মানুষ থাকবার জায়গার জন্য ৭৫ নিজতরফ এলাকায় গেলে তাঁদেরকে ওখানকার কিছু মানুষ বাঁধা দেন। এতেই দুপক্ষের মধ্যে গন্ডগোল বেঁধে যায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশকে ছুটে আসতে হয়। নিজতরফ গ্রাম পঞ্চায়েতের ২৫, ৪০, ৭৫ নিজতরফ এলাকায় বেশকিছু মানুষ অবৈধভাবে সরকারি আওতাধীন খাস জমি দখল করে রেখেছেন।

তিনি আরও বলেন, এমনকি অনেকে জমির কারবার করছেন বলেও আমার কাছে অনেকদিন থেকে অভিযোগ আসছে। এটা নিয়ে মাঝেমধ্যে ঝামেলা হচ্ছে বলেও খবর আসছে। এদিনের ঘটনাতেও জমি দখলকারবারীদের একটা বিষয়টি প্রকাশ্যে আসছে বলে শুনতে পেয়েছি। তাই সমস্ত সরকারি জমি অবৈধ দখলমুক্ত করে সেগুলি কাজে লাগানোর দাবি জানিয়েছি। এতে সরকারের সম্পদ তৈরির সম্ভাবনার থাকছে। এবিষয়ে তিনি ব্লক ও মহকুমা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন বলেও জানিয়েছেন।

মেখলিগঞ্জের মহকুমা শাসক রামকুমার তামাং অবশ্য জানিয়েছেন, এদিন নিজতরফ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় কিছু মানুষ এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় সরে যেতে চাইছিলেন। এটা নিয়ে একটা ঝামেলা হয়েছিল। খবর পেয়েই প্রশাসন এবং পুলিশ সেখানে পৌঁছে বিস্তারিত খোঁজখবরও নিয়েছেন। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে।