চিনে কোভিড ১৯ ভ্যাকসিনের প্রদর্শনী 

1316

বেজিং: দেশে তৈরি করোনার টিকার প্রদর্শনী শুরু হল বেজিংয়ের বাণিজ্য মেলায়। চিনের প্রথম সারির দুই ভ্যাকসিন নির্মাতা সংস্থা সিনোভ্যাক বায়োটেক ও সিনোফার্ম-এর তৈরি টিকার ভায়ালের প্রদর্শনী চলছে বাণিজ্য মেলায়।

৫ সেপ্টেম্বর থেকে বেজিংয়ে বাণিজ্য মেলা শুরু হয়েছে। সেখানেই টিকার ভায়ালের প্রদর্শনী করছেন নির্মাতা সংস্থাগুলির প্রতিনিধিরা। ছোট ভায়ালে ভরা টিকার ডোজ দেখানো হচ্ছে আমজনতাকে। ওষুধের শিশি দেখার জন্য সাধারণ মানুষের উৎসাহও ছিল দেখার মতো।

- Advertisement -

সিনোভ্যাকের এক প্রতিনিধি জানিয়েছেন, এই প্রদর্শনীতে টিকার বাজারদর কতটা বাড়বে জানা নেই, তবে সাধারণ মানুষের আস্থা বাড়বে বলেই তাঁদের বিশ্বাস। আশা করা যাচ্ছে, এই বছরের শেষে বা আগামী বছরের শুরুতেই বাজারে টিকা নিয়ে আসবে সিনোভ্যাক। এ বছরের মধ্যেই চিনা করোনা টিকার তৃতীয় ও চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল হবে। চেষ্টা চলছে এ বছরের মধ্যেই মানব ট্রায়াল শেষ করার। সিনোভ্যাক জানিয়েছে, ইতিমধ্যেই প্রতিষেধক তৈরির একটি কারখানা নির্মাণের কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। ওই কারখানায় বছরে ৩০ কোটি প্রতিষেধক তৈরি হবে।

চিনের রাষ্ট্রীয় সংবাদপত্র গ্লোবাল টাইমস বলেছে, চিনা প্রতিষেধকের দাম বেশি হবে না। দুই ডোজের দাম ১৪৬ ডলারের নীচে রাখা হবে। ভারতীয় মুদ্রায় দাম ১০ হাজার টাকার বেশি নয়। আপাতত উহানের পুনরুজ্জীবনের ওপর সবচেয়ে জোর দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে গ্লোবাল টাইমস। এত বড় স্বাস্থ্য বিপর্যয়ের মুখে পড়েও দ্রুত তা থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য চিনা নেতৃত্বের প্রশংসাও করা হয়েছে।