বিস্ফোরক অভিযোগ রাজ্যের এই প্রাক্তন মন্ত্রীর

119

মালদা: মালদায় তৃণমূলের ঘরোয়া রাজনীতিতে জটিলতা আরও বাড়ল। এবার রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূলের জেলা চেয়ারম্যানকে প্রাণে মারার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিধায়ক নিহাররঞ্জন ঘোষের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতেই নীহার ঘোষের বাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় একদল দুস্কৃতী। নীহারবাবুর অভিযোগ ছিল, কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরিই এই হামলার পিছনে রয়েছেন। এরপরই বুধবার নিজের পার্টি অফিসে এক সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে তাঁকে প্রাণে মারার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ তুললেন কৃষ্ণেন্দুবাবু। বিধায়কের হুমকিতে নিরাপত্তার অভাবে ভুগছেন বলেও জানান কৃষ্ণেন্দুবাবু। তার পরিবারের তরফে পালটা ইংরেজবাজর থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। গত কয়েকদিন আগে কালিতলা এলাকায় এক জল ব্যবসায়ী ও তাঁর স্ত্রীকে মারধোর করার অভিযোগ ওঠে বিধায়কের অনুগামীদের বিরুদ্ধে।

এমনকি সেই সময় বিধায়কের স্ত্রী নিজেও উপস্থিত ছিলেন বলেও জানা গিয়েছে। এরপরই বিধায়কের বাড়িতে হামলা চালায় কিছু মানুষ। এলাকার একজন জনপ্রতিনিধি হিসাবে কৃষ্ণেন্দুবাবু ঘটনাস্থলে পরিস্থিতি সামাল দিতে যান বলে দাবি। তাঁর সঙ্গে ছিলেন জেলা যুব তৃণমূলের সভাপতি প্রসেনজিৎ দাস। কিন্তু বিধায়ক খোদ কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরির বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। কৃষ্ণেন্দুবাবুর অভিযোগ, এর আগেও একাধিকবার তাঁকে প্রাণে মারার চেষ্টা করেছেন নিহারবাবু। তাঁর উপরে হামলাও হয়েছে। কৃষ্ণেন্দুবাবু জানান, মুখ্যমন্ত্রীর জনসভায় ব্যাপক ভিড় হয়েছিল। তা দেখে খুশি হয়েছেন নেত্রী। তাই তাঁকে বদনাম করতে কালিমালিপ্ত করতে ভুয়ো অভিযোগ তোলা হচ্ছে। এমনকি বর্তমানে নীহারবাবু বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন বলেও তোপ দাগেন কৃষ্ণেন্দু।

- Advertisement -