হাতিও তাড়াবেন সিভিক ভলান্টিয়াররা

641

মাদারিহাট : এবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি হাতিও তাড়াবেন সিভিক ভলান্টিয়াররা। বুনো দাঁতালগুলিকে তাড়াতে বনকর্মীদের সঙ্গে সিভিক ভলান্টিয়ারদের কাজে লাগানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য বন দপ্তর। এ ব্যাপারে সোমবার মাদারিহাট প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে তিনটি ব্লকের সিভিক ভলান্টিয়ারদের প্রশিক্ষণ দিলেন বনকর্তারা। ডব্লিউবিএফএস দেবদর্শন রায় জানান, ৫১ জন সিভিক ভলান্টিয়ার ও সিআইএফকে মৌখিকভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। পরবর্তী ধাপে সরাসরি এঁদের বনকর্মীদের সঙ্গে হাতি, চিতাবাঘ ও বাইসন তাড়াতে কাজে লাগানো হবে।

দেবদর্শনবাবু জানান, মাদারিহাট থেকে ১৫ জন, বীরপাড়া থেকে ১০ জন হাসিমারা থেকে ৪ জন, ফালাকাটা থেকে ৫ জন সিভিক ভলান্টিয়ার এবং কালচিনি থেকে ১৭ জন সিআইএফ কর্মী নেওয়া হয়েছে। এঁরা বনকর্মীদের সঙ্গে মিলে বন্যপ্রাণীদের তাড়ানোর কাজ করবেন। জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের সহকারী বন্যপ্রাণ সংরক্ষক মণীশকুমার যাদব জানান, পুলিশ ও বনকর্মীরা যৌথভাবে বন্যপ্রাণী তাড়ানোর কাজ করবেন। এছাড়া কোথাও বন্যপ্রাণী বের হলে সিভিক ভলান্টিয়াররা যাতে দ্রুত খবর দেন তার আর্জিও জানানো হয়েছে।  সিভিক ভলান্টিয়ারদের কাজ তো আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করা। সেখানে হাতি তাড়ানোর কাজে লাগানো হলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সমস্যা হবে না? এই প্রশ্নের উত্তরে আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী বলেন, আমরা সিভিক ভলান্টিয়ারদের সরাসরি বন দপ্তরকে দিচ্ছি না। যখন প্রয়োজন হবে নিয়ে যাবে। সেইজন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কোনো সমস্যা হবে না।