ট্যাব নিয়ে স্কুল থেকেই ফেসবুক লাইভ, অশ্লীলতায় অভিযুক্ত পড়ুয়ারা

402

বালুরঘাট: রাজ্য সরকারের টাকায় কেনা ট্যাব। আর এগারো মাস পর স্কুল খুলতেই সেই ট্যাবের অপব্যবহারের ছবি সামনে চলে এল। ঘটনা বালুরঘাট খাদিমপুর হাইস্কুলের।এদিন স্কুলের ছাত্রদের ফেসবুক লাইভ ঘিরে নিন্দার ঝড় উঠেছে বিভিন্ন মহলে। লাইভে দেখা যাচ্ছে প্রায় সকলের হাতেই মোবাইল। দ্বাদশশ্রেণীর ক্লাস ঘরের ভিতর কেউ বেঞ্চে, কেউবা আবার রীতিমতো শিক্ষকের চেয়ারে বসে অশ্লীল ভাষা ও অঙ্গভঙ্গি প্রয়োগ করছে নিজেদের মধ্যেই। এমনকি উচ্চস্বরে গান চালিয়ে নাচানাচিরও দৃশ্যও সামনে এসেছে সেই লাইভ ভিডিওতে। পরে যদিও স্কুল কর্তৃপক্ষের নজরে আসলে লাইভটি ডিলিট করে দেওয়া হয়।কিন্তু ততক্ষণে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে। যা দেখে তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে সমাজের বিভিন্ন মহলে।অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন সরকারি টাকায় দেওয়া ট্যাব যদি এভাবে ব্যবহার হয় তাহলে গোটা প্রকল্পটা নিয়েই প্রশ্ন উঠে যায়।বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিরোধী রাজনৈতিক দলের অনেকেই।তাদের কটাক্ষ, নিছক ভোটের দিকে তাকিয়ে প্রকল্প ঘোষণা করলে এমনটা হওয়াই স্বাভাবিক।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তমাল চক্রবর্তী এই বিষয়ে বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংস্কৃতির আমূল পরিবর্তন হচ্ছে। এমন ঘটনা অনভিপ্রেত। ক্লাসরুমে ওই ছাত্রদের ভাইরাল হওয়া ভিডিওর খবর পেয়েই তাদের অভিভাবকদের ডেকে পাঠানো হয়েছিল। বেশকিছু সিদ্ধান্তের কথা তাদের জানানো হয়েছে। স্মার্টফোন বা ট্যাব বিদ্যালয়ে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। ওই ছাত্রদের আগামী চার মাস শুধু প্র্যাকটিকাল ক্লাস চলবে। সেখানে অভিভাবকরাও উপস্থিত থাকবেন।’