কোভিড অতিমারীর মাঝেই মেলায় বসছে জুয়া-লেটো গানের আসর

29

বর্ধমান: রাজ্য জুড়ে কোভিডের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখি। পূর্ব বর্ধমান জেলাতেও লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। শনিবার একদিনে ৪৪৮ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরেই পুলিশি তৎপরতা বাড়তে শুরু করেছে। সংক্রমণ মোকাবিলায় জোর প্রচার শুরু করেছে জেলার পুলিশ মহল। এত কিছুর পরেও অতিমারীর মাঝেই প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই করোনাবিধি শিকেয় তুলে পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের কয়রাপুরে বসছে মেলা। সেই মেলা প্রাঙ্গনে লেটো গানের আসর যেমন বসেছে তেমনই বসেছে জুয়ার আসর।

কয়রাপুরের বাসিন্দাদের কথায় জানা গিয়েছে, প্রতিবছর রামনবমীর পর থেকে কয়রাপুর গ্রামে দেবী মায়ের মন্দির লাগোয়া এলাকায় মেলা বসে। গত বছর লকডাউন জারি থাকায় মেলা বসেনি। অথচ এই বছর ভোট মিটতে না মিটতে না মিটতে করোনা সংক্রমণ মাত্রাতিরিক্তভাবে বেড়ে চলা সত্ত্বেও মেলার আয়োজন করেছেন উদ্যোক্তরা। ঘটনায় উদ্বিগ্ন আমজনতা।

- Advertisement -

মেলা ও পুজো কমিটির কর্তা ষষ্ঠী হুঁই অবশ্য মেলার আয়োজন নিয়ে অনিয়মের কিছু দেখছেন না বলেই মত প্রকাশ করেছেন। তিনি দাবি করেন, ’সরকারি নিয়ম ও নির্দেশিকা মেনেই মেলার আয়োজন করা হয়েছে। তবে মেলায় জুয়ার আসর বসা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে এড়িয়ে যান তিনি। যদিও আউশগ্রাম ১ ব্লকের বিডিও অরিন্দম মুখোপাধ্যায় স্পষ্ট জানান, ’মেলার আয়োজন হয়েছে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই।’ জেলার পুলিশ সুপার অজিত কুমার সিং বলেন, ‘বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হবে।’ এদিকে স্থানীয়রাও দাবি তুলেছেন মেলা বন্ধের বিষয়ে যদিও মেলার আয়োজন নিয়ে নিরব বিল্বগ্রাম পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ।