কফ সিরাপের বদলে জালনোট, চক্রের হদিস কালিয়াচকে

121

কালিয়াচক: বিপুল পরিমাণ কফ সিরাপ সহ পাচারের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করল কালিয়াচক থানার পুলিশ। শনিবার দুপুরে সাত দিনের পুলিশ হেপাজত চেয়ে ধৃতদের মালদা জেলা আদালতে পেশ করা হয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতদের মধ্যে মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম(২৫) অসমের গরবেতা জেলার কটলিঝাড় গ্রামের বাসিন্দা। অনিল প্রামাণিক(৬৫) ও শম্ভু প্রামাণিক(৩৫) দুজনেই কালিয়াচক থানার নওদা যদুপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের দরিয়াপুরের সালেপুর গ্রামের বাসিন্দা।

গোপন সূত্রের খবরের ভিত্তিতে এদিন ভোরে কালিয়াচক থানার পুলিশ চরিঅনন্তপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘোষটোলা গ্রামে অভিযান চালায়। সেখানে রাইসুদ্দিন শেখের বাড়িতে হানা দিয়ে ৭৫০ বোতল কফ সিরাপ উদ্ধার করে। দীর্ঘদিন ধরেই রাইসুদ্দিনের বাড়ি থেকে কফ সিরাপ পাচার চক্রের একটি বড় চক্র কাজ করছে বলে অভিযোগ। বিভিন্ন জায়গা থেকে কফ সিরাপগুলি নিয়ে এসে ওই বাড়িতেই মজুত করা হত। তারপর রাতে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের চোখে ধুলো দিয়ে সীমান্ত দিয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হত বাংলাদেশ। তার পরিবর্তে বাংলাদেশ থেকে পাঠানো হত জাল নোট। এভাবেই দীর্ঘদিন থেকেই বহাল তবিয়তে কারবার চালিয়ে যাচ্ছে পাচারকারীরা। এদিন কফ সিরাপগুলি বাংলাদেশে পাচার করার আগেই পুলিশের জালে ধরা পড়ে যায়। যদিও বাড়ির মালিক রাইসুদ্দিন শেখ বর্তমানে পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে কালিয়াচক থানার পুলিশ।

- Advertisement -

কালিয়াচক থানার আইসি আশিস দাস বলেন, ‘৭৫০ বোতল কফ সিরাপ সহ এই কারবারের সঙ্গে যুক্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই র্যাকেটটি কফ সিরাপগুলি নিয়মিত বাংলাদেশে পাচার করে থাকে। এর আরও কেউ যুক্ত রয়েছে কি না তাদের চিহ্নিত করার জন্য ধৃতদের পুলিশি হেপাজতে নেওয়া হয়েছে।‘